BLACK blog এ আপনাকে স্বাগতম! আপনি হতে পারেন BLACK blog পরিবারের নিয়মিত একজন সদস্য। আপনার লেখা প্রকাশ করতে পারেন আমাদের যেকোন বিভাগে। আমাদের বিভাগ সমূহঃ " পৃথিবী আজব ঘটনা, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা, অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা, অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা, গুনিজন কহেন, অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা" যে কোন বিষয় সম্পর্কে। ধন্যবাদ - BLACK iz Limited এর পক্ষ থেকে! অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা, অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা, অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ,  পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা, গুনিজন কহেন, অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা

Category Archives: পুরুষের জীম এবং ব্যায়াম

যা করতে হবে আপনাকে, যৌবন ধরে রাখতে হলে!

যৌবন ধরে রাখতে, সুস্থ-সবল, যৌবন, মসৃণতা, ত্বকের যত্ন, অ্যান্টি এজিং ময়েশ্চারাইজার, যৌবন ধরে রেখে দীর্ঘায়ু হবার ধাপ, অতিরিক্ত ওজন, ফল ফ্রুট খান, যত্ন নিন ত্বকের, হাঁটার বিকল্প নেই, হাঁটার ফলে হৃৎপিণ্ড, শরীরকে পুষ্টি যোগায়, সকালের নাস্তা, দীর্ঘায়ু হবার, ভিটামিন, ফাইবার, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, কোলেস্টেরল, ডায়াবেটিস, মস্তিষ্ক সচল থাকে, সবুজ শাকসবজি, ঘুমাতে যাওয়ার আগে, চা পান, মিষ্টি জাতীয় খাবার, মিষ্টি খাবার, স্পা করিয়ে, স্পা, কার্বহাইড্রেট, সূর্যের আলো, ভিটামিন ডি, ফ্যাট থাকে।

কে না চায় যৌবন ধরে রাখতে! এক কথায় বলতে গেলে সবাই চায়। তবে অনেকেরই হয়তো জানা নেই কি উপয়ে যৌবন ধরে রাখতে হয়। নিজের সুস্থ-সবল, নিজের তারুণ্য ধরে রাখতে হলে কিছু নিয়ম তো অবশ্যই আপনাকে মানতেই হবে। যৌবন ধরে রাখার পরামর্শের পাশাপাশি দীর্ঘায়ু হবারও কিছু কৌশল পাঠকেদের জন্য তুলে ধরা হলো। যৌবন ধরে রেখে দীর্ঘায়ু

ওজন কমিয়ে দেয় প্রভাতের রোদ!

সকালের নরম রোদে, ভিটামিন ডি, ওজন কমে যায়, ওজন বেড়ে, মানদণ্ডের, যুক্তরাষ্ট্রের, ইউনির্ভাসিটির, তার প্রভাব পড়বে, গবেষকেরা জানিয়েছেন, শারীরিক পরিশ্রম, ক্যালরি গ্রহণ, ঘুমের সময়, বিজ্ঞানীরা বলছেন, দেহঘড়ি, সার্কাডিয়ান ক্লক, উচ্চতা ও বয়স, শারীরিক সংস্পর্শে।

সকালের নরম রোদে যে শুধু প্রয়োজনীয় ভিটামিন ডি পাওয়া যায় তা নয়, এতে আপনার ওজন কমে যায়। যাঁরা দিনের অন্য সময়ের তুলনায় সকালের নরম রোদে বেশি সময় থাকেন, তাঁদের ওজন বেড়ে যাওয়ার ঝুঁকি থাকে না। আর বয়স ও উচ্চতা অনুযায়ী স্বাভাবিক ওজনের মানদণ্ডের (বডি মাস ইনডেক্স) প্রায় ২০ শতাংশই নির্ভর করে সরাসরি সূর্যের আলোতে থাকা

মেদ ঝেড়ে ফেলে দিন!

মেদ ঝেড়ে ফেলে দিন, মেদ, মেদভুঁড়ি, কিছু কৌশল, উইন্ডমিল, টার্কিশ সিটআপস, হ্যাংগিং লেগ রাইজেস, আপনি, খেলাধুলা, ৮ ঘণ্টা ঘুম, মেডিটেশন, প্রচুর পরিমানে, প্রোটিন, আঁশযুক্ত খাবার, জাঙ্ক ফুড, মিষ্টি খাবার, চর্বিযুক্ত খাবার, ডায়াবেটিস, দুই লিটার পানি, মেদ কমাতে।

মেদ প্রতিনিয়ত আপনাকে বিব্রত করছে। মেদ নিয়ে আপনি নানা সমস্যার মুখোমুখি হন। মেদ ভুঁড়িকে পুরোপুরি বিদায় করে দেবার কিছু কৌশল জেনেনিন। স্ট্রেনথ ট্রেইনের মতো অন্তত সপ্তাহে তিনদিন শারীরিক ব্যায়াম করা অত্যাবশ্যক। এটা শুধু বিপাকেই সাহায্য করে না, সঙ্গে সঙ্গে আপনার শরীর থেকে অনেক মেদ ঝরে পড়ে যাবে। আর তাই তো মেদ কমাতে এর জুড়ি নেই।

আপনার হৃদপিণ্ডের যত্নে তৈল ব্যাবহার করুন!

অলিভ অয়েল, তৈল, হৃদপিণ্ডের, খাবার তৈল, ভিটামিন, সানফ্লাওয়ার অয়েল, সূর্যমুখী তৈল, প্রচুর পরিমানে, ক্ষতিকর.

যেকোন খাবার সুস্বাদু করতে আমরা সাধারণত বিভিন্ন রকমের তৈল ব্যবহার করে থাকি। তবে আমাদের সবারই একটা অদ্ভুত বাজে ধারনা রয়েছে যে তৈল আমাদের হৃদপিণ্ডের বিকল ঘটিয়ে দেয়। এর ফলে যাদের হৃদপিন্ড একটু দুর্বল তারা  তৈল খাওয়া ছেড়ে দেয়। কিন্ত সত্যি কি সব খাবার  তৈল আমাদের হৃদপিণ্ডের জন্যে ক্ষতিকর? তা হয়তো না। জেনে নিন এমন কিছু

চাঁদের উজ্জলাতা বাড়াবে কসমেটিকস কোম্পানি, চাঁদের গাঁয়ের রং হবে আরও ফর্সা!

কসমেটিকস কোম্পানিগুলোর রং ফর্সা কারী ক্রিমের মাধ্যমে মাত্র সাত দিনে অনেককেই ফর্সা হতে দেখছেন। কিন্তু কখনও কি ভেবেছেন চাঁদ মামারও আরেকটু ফর্সা হবার ইচ্ছে আছে? যাক আপনি না ভাবলেও চাঁদ মামার কথা ঠিকি মাথায় ছিল ফোরিও নামক সুইডেনভিত্তিক একটি কসমেটিকস কোম্পানির। ফলে তারা মানুষের পাশাপাশি এবার চাঁদের গাঁয়ের রং ফর্সা করতে ব্যাস্ত হয়ে পরেছে। আসুন তাহলে শুরু করা যাক আজকের আলোচনা! ফোরিও নামক একটি কসমেটিকস কোম্পানি চাঁদের পৃষ্ঠের উজ্জ্বলতা বাড়ানোর পদ্ধতি আবিষ্কার করেছে! ফোরিও (Foreo) কসমেটিকস এর সিইও পল পেরোছ (Paul Peros) দাবী করেন তাদের পক্ষে শুধু মাত্র ০.১ শতাংশ পদার্থ ব্যবহার করে এর চাদের উজ্জ্বলতা ৮০ শতাংশ বৃদ্ধি করা সম্ভব। http://www.foreo.com/image/page4-3.jpg সুইডেনভিত্তিক এই কসমেটিকস কোম্পানি এমন অদ্ভুত প্রস্তাব দিয়েছে। কিন্তু কিভাবে তা স্পষ্ট করে বলেনি। তবে সুইডেনভিত্তিক এই ফোরিও (Foreo) নামক কসমেটিকস কোম্পানি এর চাঁদের উজ্জ্বলতা বাড়ানোর কি প্রয়োজন? এবং চাঁদের পৃষ্ঠের উজ্জ্বলতা কমের কারনে আমাদের কি কি ক্ষতি হচ্ছে? এরকম ইত্যাদি প্রশ্ন সামনে এনে তিনি কিছু যুক্তিও দেখিয়েছেন। যুক্তিগুলো নিম্নে তুলে ধরা হলঃ • চাঁদের উজ্জ্বলতা কমের কারনে রাস্তায় লেম্পপোস্ট বেশী ব্যাবহার হচ্ছে। ফলে বিদ্যুৎ খরচ বেড়ে যাচ্ছে। • রাস্তায় প্রতিটি লেম্পপোস্ট বছরে ১২০ কেজি কার্বন ডাই অক্সাইড তৈরি করে। • প্রতি ৩০ মাইল এর রাস্তায় লেম্পপোস্ট গড়ে বছরে ৩.৬ মিলিয়ন টন কার্বন ডাই অক্সাইড তৈরি করে। • মাত্র ০.১ শতাংশ পদার্থ ব্যবহার করে এর চাদের উজ্জ্বলতা ৮০ শতাংশ বৃদ্ধি করা সম্ভব। • শুধু মাত্র মাটি ও অন্যান্য উপাদান মিলিয়ে এ উজ্জ্বলতা বাড়ান হবে। • রাসায়নিক উপাদানের ব্যবহার হবে নগন্য ফলে কোন প্রকার পরিবেশে বিপর্যয় ঘটার সম্ভবনা নেই! http://www.foreo.com/image/page4-2.jpg ফোরিও (Foreo) কসমেটিকস এর সিইও পল পেরোছ (Paul Peros) আরও বলেন "আমারা মানুষের মধ্যে সতর্কতা ছড়িয়ে দেওয়ার চেস্টা করছি, কারন চাঁদের পৃষ্ঠের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধির জন্য আমাদের ফান্ড এর প্রয়োজন।" আসুন একটা ভিডিও ক্লিপ্স দেখে নিই! @ চাঁদের উজ্জ্বলতা বাড়াবে কসমেটিকস কোম্পানি! - Cosmetics Wants To Brighten Moon। আপনি যদি আরও জানতে চান ফোরিও (Foreo) কসমেটিকস এর ওয়েবসাইট এ দেখতে পারেন এই লিংকে www.foreo.com/institute/brighter-moon/ অপরদিকে ফোরিওর দেওয়া এ প্রস্তাবের সমালোচনা করেছেন বিশিষ্ট জনেরা এবং বিজ্ঞানীরা। তারা শুরুতেই শুধুমাত্র ০.১ শতাংশ পদার্থ ব্যবহার করে চাদের উজ্জ্বলতা ৮০ শতাংশ বৃদ্ধির ব্যাপারটাকে অসম্ভব বলেছে। সাথে সাথে এও জানিয়ে দিয়েছে যদি প্রচুর পরিমাণ রাসায়নিক পদার্থ ব্যবহার করে তবে সম্ভব হতে পারে এবং এ সকল রাসায়নিক পদার্থ প্রাণীদেহে ক্যান্সারসহ নানা ধরনের মারাত্মক রোগের সৃষ্টি করবে। সাথে সাথে ভয়াবহ পরিবেশ বিপর্যয় ঘটাবে। এদিকে লাইভ সাইন্স ব্যাপারটা কে সম্পুর্ন মিথ্যা এবং ভিত্তিহীন বলে দাবী করেছে এবং তাদের মতে এটা হতে পারে বড় একটি স্কেম। welcome you all to my virtual home, it's my great pleasure to see you here! (Personal Site) and @ facebook as Mehedi Menafa

কসমেটিকস কোম্পানিগুলোর রং ফর্সা কারী ক্রিমের মাধ্যমে মাত্র সাত দিনে অনেককেই ফর্সা হতে দেখছেন। কিন্তু কখনও কি ভেবেছেন চাঁদ মামারও আরেকটু ফর্সা হবার ইচ্ছে আছে? যাক আপনি না ভাবলেও চাঁদ মামার কথা ঠিকি মাথায় ছিল ফোরিও নামক সুইডেনভিত্তিক একটি কসমেটিকস কোম্পানির। ফলে তারা মানুষের পাশাপাশি এবার চাঁদের গাঁয়ের রং ফর্সা করতে ব্যাস্ত হয়ে পরেছে। আসুন

কখনো ছায়া দেখে ভয় পেয়ো না, কারন তার খুব কাছেই কোথাও, আলো আছে।

টু মাই অল ডিয়ার সিস্টার্স ♥ ♥

টু মাই অল ডিয়ার সিস্টার্স ♥ ♥একদিন মেয়ে তার মাকে প্রশ্ন করলঃ ”মা , আমি কি ভাবে একজন ভাল ছেলে খুঁজবো আমার জন্য ? ” উত্তরে মা বললঃ ” ভাল ছেলের চিন্তা মাথা থেকে ঝেরে ফেল , নিজে ভাল মেয়ে হয়ে গড়ে উঠো , ভাল ছেলে আপনা আপনি এসে ধরা দিবে , কুরআন কারিম এ