BLACK blog এ আপনাকে স্বাগতম! আপনি হতে পারেন BLACK blog পরিবারের নিয়মিত একজন সদস্য। আপনার লেখা প্রকাশ করতে পারেন আমাদের যেকোন বিভাগে। আমাদের বিভাগ সমূহঃ " পৃথিবী আজব ঘটনা, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা, অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা, অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা, গুনিজন কহেন, অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা" যে কোন বিষয় সম্পর্কে। ধন্যবাদ - BLACK iz Limited এর পক্ষ থেকে! অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা, অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা, অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ,  পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা, গুনিজন কহেন, অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা

Category Archives: পছন্দের নির্বাচিত পোস্ট

গরমে অতিষ্ঠ? এসি কিনবেন ভাবছেন? এসি ক্রয় করার পূর্বে যে দিকসমূহ লক্ষ্য রাখা প্রয়োজন।

genarel ac price bd, less price bd, bangladesh ac

এসি এর বাজার গরম হয়ে উঠে মূলত এই গরমেই। আর তাই গরমের এই বাদভাঙ্গা তীব্র দাবদাহ হতে মুক্তি পেতে এসি এর বিকল্প নেই। এসি কেবল ক্রয় করলেইতো হবে না খেয়াল রাখতে হবে আরো অনেক কিছু। তেমনি এসি ক্রয় করতে কিছু গুরুত্বপূর্ণ দিক যা একজন ক্রেতার জানার একান্তই প্রয়োজন। সর্বপ্রথম নিজ বাড়ীর ধরণ থেকে আরম্ভ করে

নতুন প্রজুক্তি- ভাঙ্গা বস্তু জোড়া লাগবে নিজে নিজেই

নতুন প্রজুক্তি- ভাঙ্গা বস্তু জোড়া লাগবে নিজে নিজেই! এই প্রজুক্তি আর কল্পকাহিনী নয়, এখন এটি বাস্তবেই সম্ভব। অসম্ভব এই বিষয়টিকে সম্ভব করেছেন নেদারল্যান্ড এর বিজ্ঞানীরা। নেদারল্যান্ডের Eindhoven University of Technology এর বিজ্ঞানীদের সঙ্গে নিয়ে রাসায়নিক কোম্পানি AkzoNobel নতুন ধরনের এ পলিমার উদ্ভাবন করেছেন। নতুন ধরনের এই পলিমার দিয়ে তৈরি কোন বস্তু ভেঙ্গে গেলে দুই প্রান্ত

সুপারসনিক যাত্রী বিমান নিয়ে আসছে নাসা

সুপারসনিক যাত্রী বিমান নিয়ে আসছে নাসা

নাসা নিয়ে আসছে সুপারসনিক প্যাসেঞ্জার জেট । গত মঙ্গলবার এই মহাকাশ গবেষণা সংস্থার তরফ থেকে ঘোষণাটি করা হয়েছে। এই জেট বিমানটি যতটা সম্ভব দক্ষ করে তোলা হবে। ইতিমধ্যেই পরিকল্পনার কথাগুলো সামনে আনা হয়েছে। নাসার অ্যাডমিনিস্ট্রেটর চার্লস বলডেন গতসোমবার বলেছেন, এই প্রকল্পের প্রথম কনট্রাক্ট দেয়া হয়েছে মার্কিন সংস্থা লকহিড মার্টিনকে। ২০ মিলিয়ন ডলারের এই কনট্রাক্ট দেওয়া

প্রযুক্তি এসেছে কিন্তু আমরা আপডেট হতে পারিনি

প্রযুক্তি এসেছে কিন্তু আমরা আপডেট হতে পারিনি

প্রযুক্তি এসেছে কিন্তু আমরা আপডেট হতে পারিনি। চলচ্চিত্রে এখন আর আগের মতো সরব নন চিত্রনায়িকা পপি। এ বছরে তার একটি চলচ্চিত্র মুক্তি পেলেও তিনি তেমন কোনো আলোচনায় আসতে পারেননি। বিশেষ দিনে তাই এখন তার ভরসা ছোটপর্দা। এবার একটি বিজ্ঞাপনের কাজও করলেন তিনি। সম্প্রতি একটি ফুড গ্রুপের ব্র্যান্ড অ্যাম্বেসেডর হয়ে কিছুদিন আগেই সেই গ্রুপের একটি পণ্যের

“চল ঘরে বসে আয় করি” প্রোগ্রামের টোকেন সংগ্রহ শুরু করেছেন সবাই! – BLACK iz IT Institute

"অনলাইনে ঘরে বসে আয়" এ অংশগ্রহণের নিয়ম এবং টোকেন সংগ্রহের নিয়ম বর্তমানে আউটসোর্সিং মার্কেটগুলোতে বাংলাদেশের অবস্থান প্রথমদিকে। বাংলাদেশি তরুণেরা যেমন ঘরে বসে লাখ টাকা আয় করছেন তেমনি বহিবিশ্বে বাংলাদেশের সুনাম ছড়িয়ে দিচ্ছেন। কিন্তু নির্দিস্ট গাইড লাইন বা পথ না জানা থাকার কারনে আমাদের দেশের অনেকেই আউটসোর্সিং বা ফ্রিল্যান্সিং এর মাধ্যমে আয় করতে পারছে না। আর এই সমস্যার কথা মাথায় রেখেই প্রতি ছয় মাস পর পরই BLACK iz IT Institute কর্তিক সম্পুর্ন Free Freelancing Programe টি আয়োজন করা হয়। এবারের Free Freelancing Programe এর নাম করন করা হয়েছে "অনলাইনে ঘড়ে বসে আয়"। এতে যে কেউ সম্পুর্ন ফ্রিতে অংশগ্রহন করতে পারবে।

দেশ সেরা আইটি স্ক্লিল ডেভেলপমেন্ট প্রতিষ্ঠান BLACK iz IT Institute কর্তিক সম্পুর্ন Free Freelancing Program 2015 শুরু হতে যাচ্ছে আর মাত্র ১০ দিন পর থেকে। এবারের পোগ্রাম শুরু হচ্ছে এপ্রিল ১৯ তারিখ থেকে ।  প্রতি ছয় মাস পর পরই BLACK iz IT Institute কর্তিক সম্পুর্ন Free Freelancing Program টির জন্য টোকেন সংগ্রহ শুরু করেছেন সবাই!

“চল করি অনলাইনে আয়” এ অংশগ্রহণ এবং টোকেন সংগ্রহের নিয়ম (Free Freelancing Program)

"অনলাইনে ঘরে বসে আয়" এ অংশগ্রহণের নিয়ম এবং টোকেন সংগ্রহের নিয়ম বর্তমানে আউটসোর্সিং মার্কেটগুলোতে বাংলাদেশের অবস্থান প্রথমদিকে। বাংলাদেশি তরুণেরা যেমন ঘরে বসে লাখ টাকা আয় করছেন তেমনি বহিবিশ্বে বাংলাদেশের সুনাম ছড়িয়ে দিচ্ছেন। কিন্তু নির্দিস্ট গাইড লাইন বা পথ না জানা থাকার কারনে আমাদের দেশের অনেকেই আউটসোর্সিং বা ফ্রিল্যান্সিং এর মাধ্যমে আয় করতে পারছে না। আর এই সমস্যার কথা মাথায় রেখেই প্রতি ছয় মাস পর পরই BLACK iz IT Institute কর্তিক সম্পুর্ন Free Freelancing Programe টি আয়োজন করা হয়। এবারের Free Freelancing Programe এর নাম করন করা হয়েছে "অনলাইনে ঘড়ে বসে আয়"। এতে যে কেউ সম্পুর্ন ফ্রিতে অংশগ্রহন করতে পারবে।

বর্তমানে আউটসোর্সিং মার্কেটগুলোতে বাংলাদেশের অবস্থান প্রথমদিকে। বাংলাদেশি তরুণেরা যেমন ঘরে বসে লাখ টাকা আয় করছেন তেমনি বহিবিশ্বে বাংলাদেশের সুনাম ছড়িয়ে দিচ্ছেন। কিন্তু নির্দিস্ট গাইড লাইন বা পথ না জানা থাকার কারনে আমাদের দেশের অনেকেই আউটসোর্সিং বা ফ্রিল্যান্সিং এর মাধ্যমে আয় করতে পারছে না। আর এই সমস্যার কথা মাথায় রেখেই প্রতি ছয় মাস পর পরই BLACK

আসছে বাতাসের ছাতা! ‘এয়ার আমব্রেলা’ বা ‘হাওয়া ছাতা’

দিন দিন এগিয়ে চলেছে বিশ্ব। মানুষের প্রয়োজনে আবিষ্কার হচ্ছে নতুন নতুন জিনিস। তাহলে পিছিয়ে থাকবে কেন আমাদের ছাতা! তাই এবার চীনের বিজ্ঞানীরা আবিষ্কার করেছেন ‘এয়ার আমব্রেলা’ বা ‘হাওয়া ছাতা’। এখন আর ছাতা উল্টে যাওয়ারও ভয় নেই, ছিঁড়ে যাওয়াও নেই কোনো সম্ভবনা। নতুন তৈরি এ ছাতাটি (এয়ার আমব্রেলা) দেখতে একটি লাঠির মতো। আর সেটিকেই ধরে রাখতে হবে ছাতার মতো করে। সেই লাঠিই আপনাকে বাঁচাবে বৃষ্টির হাত থেকে! কী, আশ্চর্য হলেন? এর নামই হচ্ছে এয়ার আমব্রেলা! বাতাসের তৈরি ছাতা! ‘এয়ার আমব্রেলা’ বা ‘হাওয়া ছাতা’! এর অবশ্য ব্যাখ্যাও আছে। গবেষকরা জানিয়েছেন, লাঠির মতো দেখতে অংশের উপরিভাগে এমন প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে যেখান থেকে প্রবল বেগে বাতাস বের হবে। এই জন্যেই এর নাম দেওয়া হয়েছে এয়ার আমব্রেলা। এতে বৃষ্টির পানি তা ছেদ করতে না পেরে পাশে ছিকটে পড়বে। ফলে এয়ার আমব্রেলা আপনাকে বৃষ্টিতেও দিবে সস্তি! তবে এয়ার আমব্রেলা নিয়ে এখনো চলছে গবেষণা। আগামী বছরের শেষের দিকে এয়ার আমব্রেলা পাওয়া যেতে বাজারে। যার দাম পড়বে দাম পড়বে প্রায় সাত হাজার টাকা। এয়ার আমব্রেলা বর্তমান প্রযুক্তির অন্যতম অদ্ভুত সৃষ্টি!

দিন দিন এগিয়ে চলেছে বিশ্ব। মানুষের প্রয়োজনে আবিষ্কার হচ্ছে নতুন নতুন জিনিস। তাহলে পিছিয়ে থাকবে কেন আমাদের ছাতা! তাই এবার চীনের বিজ্ঞানীরা আবিষ্কার করেছেন ‘এয়ার আমব্রেলা’ বা ‘হাওয়া ছাতা’। এখন আর ছাতা উল্টে যাওয়ারও ভয় নেই, ছিঁড়ে যাওয়াও নেই কোনো সম্ভবনা। নতুন তৈরি এ  ছাতাটি (এয়ার আমব্রেলা) দেখতে একটি লাঠির মতো। আর সেটিকেই ধরে রাখতে

ব্রাজিল দুই গোলে হারাল আর্জেন্টিনাকে, মেসি-নেইমার মুখোমুখী (ভিডিও)

চীনের রাজধানী বেইজিংয়ে অনুষ্ঠিত ব্রাজিল বনাম আর্জেন্টিনার প্রীতি ম্যাচটি নিয়ে উম্মাদনার কমতি ছিলনা ফুটবলবিশ্বে। উম্মাদনার প্রধান কারণ ছিলো মেসি-নেইমারকে মুখোমুখী খেলতে দেখা। কিন্তু যাদের নিয়ে এতো উম্মাদনা সেই মেসি-নেইমার ম্যাচে আলাদা করে উজ্জ্বলতা ছড়াতে পারেনি। বরং দুইজনই সহজ কিছু সুযোগ নষ্ট করেছেন। ম্যাচের ৪০ মিনিটে তো মেসি পেনাল্টিই মিস করলেন। আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে চিরপ্রতিদ্বন্দী আর্জেন্টিনার বিপক্ষে ২-০ গোলের জয় পেয়েছে ব্রাজিল। ব্রাজিলের পক্ষে দুটি গোলই করেছেন দিয়েগো তারদেল্লি। ম্যাচের প্রথমদিকে দারুণ কিছু সুযোগ সৃষ্টি করে আর্জেন্টিনা। কিন্তু কাঙ্খিত গোল তুলে নিতে ব্যর্থ হয় মেসির দল। ম্যাচ শুরুর পরপরই দুটি ফ্রি-কিক পেলেও গোল করতে পারেনি মেসি। ম্যাচের ১৮ মিনিটে ডি মারিয়া ব্রাজিলের গোলমুখে জোড়ালো শট নিলেও তা গোলবারের উপর দিয়ে চলে যায়। ২১ মিনিটে সার্জিও আগুয়েরোর শটও বারের উপর দিয়ে চলে গেলে আবারো গোল বঞ্চিত হয় আর্জেন্টিনা। এরপর ম্যাচের ৩১ মিনিটে দারুণ এক সুযোগ নষ্ট করেন ব্রাজিল অধিনায়ক নেইমার। একক প্রচেষ্টায় ৪ জন ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে গোলরক্ষককে একা পেয়েও শেষ পর্যন্ত গোল করতে পারেননি তিনি। এর কিছুক্ষন পর আবারো মাঝমাঠের নিচ থেকে বল নিয়ে একাধিক ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে হঠাৎ আর্জেন্টিনার ডি-বক্সে ঢুকলেও গোলমুখে শট নেওয়ার আগেই বল হারান নেইমার। এরপর ম্যাচের ৪০ মিনিটে সবচেয়ে বড় বিস্ময়টি উপহার দেন লিওনেল মেসি। ডি মারিয়াকে ডি-বক্সে ফাউল করলে পেনাল্টি পায় আর্জেন্টিনা। কিন্তু পেনাল্টি থেকে গোল করতে ব্যর্থ হন বার্সেলোনার গোলমেশিন লিওনেল মেসি। মেসির বাঁ পায়ে নেয়া শটটি দারুণ দক্ষতায় ঠেকিয়ে দেন ব্রাজিল গোলরক্ষক জেফারসন। ফলে ১-০ তে পিছিয়ে থেকে বিরতিতে যায় আর্জেন্টিনা। তবে ম্যাচের ৬৪ মিনিটে ব্রাজিলকে এগিয়ে যাওয়া থেকে রুখতে পারেননি রোমারিও। তারদেল্লির দ্বিতীয় গোলে ম্যাচে ২-০ গোলে এগিয়ে যায় ব্রাজিল।

চীনের রাজধানী বেইজিংয়ে অনুষ্ঠিত ব্রাজিল বনাম আর্জেন্টিনার প্রীতি ম্যাচটি নিয়ে উম্মাদনার কমতি ছিলনা ফুটবলবিশ্বে। উম্মাদনার প্রধান কারণ ছিলো মেসি-নেইমারকে মুখোমুখী খেলতে দেখা। কিন্তু যাদের নিয়ে এতো উম্মাদনা সেই মেসি-নেইমার ম্যাচে আলাদা করে উজ্জ্বলতা ছড়াতে পারেনি। বরং দুইজনই সহজ কিছু সুযোগ নষ্ট করেছেন। ম্যাচের ৪০ মিনিটে তো মেসি পেনাল্টিই মিস করলেন। আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে চিরপ্রতিদ্বন্দী আর্জেন্টিনার

ঐতিহাসিক বিরাট গরু ছাগলের হাট, ঘরে বসেই ঘুরে আসুন হাঁট !

বিরাট গরু ছাগলের হাট,

ঐতিহাসিক বিরাট গরু ছাগলের হাট, ঘরে বসেই ঘুরে আসুন হাঁট ! গাবতলির এই ঐতিহাসিক বিরাট গরু ছাগলের হাট এশিয়ার সবচেয়ে বৃহৎ হাটও বলা হয়। আজকের দিনের শেষ মুহূর্তে ঢাকার প্রতিটি গরু ছাগলের হাটে কোরবানীর পশু কেনা বেচা জমজমাট হয়ে উঠেছে। তবে ভারতীয় গরুর আমদানি বেশি থাকায় দেশীয় গরুর খামারিরা পড়েছেন বিপাকে। বরাবরের মতো এ বছরও হাটগুলোতে

প্রজুক্তি নির্ভর আমাদের এবারের কোরবানির ঈদ!

ডাউনলোড করেনিন ঈদের জন্য অসাধারন কিছু Eid Card!

কেমন আছেন সবাই, আশা করি ভাল আছেন শুরুতেই সবাইকে ঈদ মোবারক! কোরবানির ঈদ মুসলিম জাতীর জন্য অন্যতম বড় আনন্দের দিন। আজকের আমার লিখার মূল বিষয় হচ্ছে “প্রজুক্তি নির্ভর আমাদের এবারের ঈদ”। অর্থাৎ এবারের ঈদে প্রজুক্তি যেভাবে আমাদের সাথে জড়িয়ে রয়েছে। তবে প্রথমেই কোরবানির ঈদ নিয়ে একটু আলোচনা করব। দুদিন পরই কোরবানির ঈদ। আমরা আল্লাহ্‌র সন্তুষ্টি

BLACK iz এর সকল অংগ প্রতিষ্ঠান এর পক্ষা থেকে ঈদের শুভেচ্ছা!

BLACK iz এর সকল অংগ প্রতিষ্ঠান এর পক্ষা থেকে ঈদের শুভেচ্ছা!

 প্রথমেই BLACK iz | www.black-iz.com এর সকল শুভাকাঙ্ক্ষীকে শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। BLACK iz এর পক্ষ থেকে সকল এর জন্য ঈদের প্রান ঢালা শুভেচ্ছা রইল !    ঈদের পর যোগ দিচ্ছে নতুন আরেকটি প্রতিষ্ঠান E-MARKETING ANALYZER, এই ঈদ কার্ডটি সকলের জন্য আমাদের নতুন প্রতিষ্ঠান এর পক্ষ থেকে!     BLACK iz It Institute এর সকল ছাত্র-ছাত্রি এবং শিক্ষক-শিক্ষিকাদের

বাংলাদেশে কোন ক্যামেরা কোথায় পাবেন এবং ক্যামেরা নিয়ে সকল ধরনের পরামর্শ

আপনি ক্যামেরা কেনার জন্য কি করতে পারেন ধারনা পেতে পারেন এখানে। যাদের ছবি তোলার শখ আছে তাদের জন্য ক্যামেরা এর খোজ খবর নেওয়াটা জরুরী। ব্লগে ইদানিং অনেককেই ফটো নিয়ে কথা বলতে দেখা যায়। আসুন তাহলে দেশের বাজারে কোথায় কি পাবেন, তা জেনে নেই ক্যামেরা কেনার আগে ইন্টারনেটে সেই ক্যামেরার ভালমন্দ জেনে নেবেন এটাই স্বাভাবিক। ক্যামেরার

বাঁচতে হলে থাকতে হবে জিমেইল অ্যাকাউন্ট!

আমাদের অনেকের কাছেই মাঝে মাঝে মনে হয় গুগল ছাড়া অন্য কোন সার্চ ইঞ্জিন নেই। ইচ্ছে করেই হোক আর মনের ভুলেই হোক দৈনিক কতবার যে আমরা গুগল ব্যবহার করি তার কোন সঠিক উত্তর হয়ত বা আমরা কেওই দিতে পারব না। কিন্তু এখনও অনেকেই আছে যাদের জিমেইল অ্যাকাউন্ট নেই। কিন্তু গুগুল দিন দিন তার সার্ভিসে যে পরিমান

কক্সবাজার জেলা

কক্সবাজার জেলা- কক্সবাজার সদরের নাজিরটেক থেকে টেকনাফ পর্যন্ত সৈকতের বালিতে ১২ হাজার কোটি টাকারও বেশি দামের অন্তত ১৭ লাখ ৪০ হাজার টন খনিজ পদার্থ মজুত রয়েছে। বাংলাদেশ আণবিক শক্তি কমিশনের (বিএইসি) সাবেক চেয়ারম্যান ড. আনোয়ার হোসেন বলেছেন, সৈকত বালিতে মোট খনিজের প্রাক্কলিত মজুতের পরিমাণ ৪৪ লাখ (৪ দশমিক ৪ মিলিয়ন) টন। প্রকৃত সমৃদ্ধ খনিজের পরিমাণ

কক্সবাজার জেলার ঐতিহ্য

প্রাচীন ঐতিহ্য: ১৬০০—১৭০০ খৃষ্টাব্দে শাহ সুজার আমলেএকটি মসজিদ তৈরী হয়েছিল। এটি চৌধুরী পাড়া মসজিদ বা আজগবি মসজিদ নামেপরিচিত। এটি কক্সবাজার সদরের বি.ডি.আর ক্যাম্পের উত্তর দিকে অবস্থিত। প্যাগোড়া (জাদী): ১৭৯০ ইংরেজী সালের দিকে বার্মিজরাআরাকান বিজয়ের পর কক্সবাজার বিভিন্ন এলাকায় রাখাইন সম্প্রদায় এটি নির্মাণকরে। তারা এটিকে স্মৃতিচিহ্ন বলে। কক্সবাজার সদর, রামু ও টেকনাফের পাহাড়বা উচুঁ টিলায় এ

তারা আর ধ্রুবর গল্প (একটা সত্য ঘটনা)। মেহেদি মেনাফা!

রাস্তাটা এবড়োখেবড়ো । রিকশাওয়ালা উল্কার বেগে রিকশা চালানোর প্রতিজ্ঞা নিয়েছে সম্ভবত । সাজ্জাদ ঝাঁকুনি খেতে খেতে ভাবছিল বাড়ি পৌঁছানোর আগে গায়ের হাড়গোড় আস্ত থাকলে হয় ! রাত বাজে আড়াইটা । এত রাতে রিকশার প্রতিটা ঝাঁকুনি যে পরিমান বিকট শব্দ তৈরি করছে তা আর কিছুক্ষন চলতে থাকলে গাঁয়ের লোকজন ঘুম ভেঙ্গে উঠে আসবে লাঠি সোটা নিয়ে । এক পাশে ছোট একটা খাল অন্য পাশে ধানী জমি । মাঝে শিমলতা ,সুপারি,নারকেল গাছ আর বুনো ঝোপঝাড়ে ছাওয়া কাঁচা পাকা রাস্তা । ঝিঁঝিঁ ডাকছে ক্লান্তিহীন । রিকশার টিমটিমে হ্যারিকেনের আলো আর সাজ্জাদের হাতে ধরা টর্চটার আলো নিশুতি রাতের আঁধার কাটানোর ব্যর্থ চেষ্টা করছে । রিকশাওয়ালা জোয়ান মরদ । গায়ে জোর আছে বেশ । খুব দ্রুত তালে প্যাডেলে পা চালাচ্ছে । একটু কেমন যেন । সরকার বাড়ির দক্ষিনে নাকুন্দপাড়া কমসে কম দশবার বলার পর তারপর রিকশাওয়ালা চুপচাপ মাথা হেলিয়ে রিকশায় ওঠার ইঙ্গিত করেছে । সরকারবাড়ির সামনে আসতেই একটা দৃশ্য দেখে মুগ্ধ হয়ে গেলো সাজ্জাদ । কত দিন পর এই দৃশ্যটা দেখছে সে ! ছোটবেলায় একদিন বাবার হাত ধরে গভীর রাতে হাট থেকে ফেরার সময় ঠিক এই দৃশ্যটা দেখে সে থমকে দাড়িয়ে গিয়েছিল । । বিশাল দীঘির একূল ওকূল চোখে পড়েনা । শ্বেত পাথরে বাঁধানো ঘাট । মাঝদীঘিতে একরাশ শাপলা ফুটে আছে । শাপলাবন ঘিরে হাজার হাজার জোনাকের নাচের আসর । দীঘির অন্ধকার জলে ফোটা ফোটা জোনাক আলোর ছায়া । নিশুতি রাতের হিম বাতাসে তিরতির করে কাঁপছে দীঘির কালো জল । মনে হচ্ছে আকাশের সব নক্ষত্র জলের মায়ায় দীঘিতে নেমেছে । তন্ময় হয়ে তাকিয়েছিল সাজ্জাদ । ব্যাগটায় হাত বুলিয়ে তৃপ্তিতে চোখ মুদল ও । আজ চাঁদ উঠলে পরশু ঈদ । ছেলেটার জন্য সোনালি সুতোয় বোনা পাজামা পাঞ্জাবি আর আয়েশার জন্য শাড়ি আলতা চুড়ি । শ্বশুরবাড়ির আত্মীয়স্বজনের জন্যেও অনেক কিছু কিনেছে । সারাদিনের ক্লান্তিতে গা ভেঙ্গে আসতে চাইছে ওর । । ঢাকা থেকে দিনাজপুর সহজ জার্নি নয় । একটা বেসরকারি ফার্মে চাকরি করে সাজ্জাদ । । দিনরাত গাধার খাটনি । বেতনও অত বেশি নয় । সাতপাঁচ ভাবছিল । গোরস্থান ঘেষে যাওয়ার সময় বাবা মায়ের কবরের বেড়াটা চোখে পড়ল ওর । একটু বিমর্ষ হয়ে গেলো সাজ্জাদ । গতবছর মা একটা শাড়ি চেয়েছিল । সাদা শাড়ি । সাজ্জাদ সবার জন্য কেনাকাটা করেছিল সেবার । ওর শালা সম্বুন্ধী শ্বশুর শাশুড়ি সবার জন্য । শুধু মায়ের শাড়িটা কিনতে বেমালুম ভুলে গিয়েছিল ।সেই ঈদের দুদিন পরেই মা মারা গিয়েছিলেন । কাফনের সাদা কাপড়ে জড়ানো মায়ের পা ধরে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েছিল সাজ্জাদ । একটু ঝিম ধরেছিল । রিকশার তীব্র ঝাকুনিতে সচকিত হলো সে। হঠাত্ খেয়াল হলো ওর একটু যেন বেশিই নীরব হয়ে গেছে আশপাশ । গা ছমছম করা নিস্তব্ধতা নেমেছে রাস্তা জুড়ে ! ঝিঁঝির ডাক থেমে গেছে । একটু গা শিরশির করে উঠল বিনা কারনে আর টর্চটা শক্ত হাতে আকড়ে ধরল সাজ্জাদ । কি ভেবে পিছন ফিরল ও । রিকশার হুডের ফাঁক দিয়ে ফেলে আসা রাস্তাটার দিকে তাকাল ও । চমকে উঠে চোখ বড় বড় হয়ে গেল সাজ্জাদের ! অন্ধকার রাস্তাটা ধরে পুরো শরীরে সাদা কাপড়ে জড়ানো একটা মানুষ প্রবল বেগে দৌড়ে আসছে ।সাদা কাপড় হাওয়ায় উড়ছে । অপার্থিব সেই দৃশ্য দেখে সাজ্জাদের গলা শুকিয়ে গেল । প্রচন্ড ভয় পেয়ে সামনে ফিরল ও । কাঁপা কাঁপা স্বরে একটু চেঁচিয়ে উঠল , ও ভাই একটু তাড়া তাড়ি চালান ! রিকশাওয়ালা নির্বিকার ।যেন শুনতেই পায়নি । পিছন রাস্তা থেকে কে যেন মায়াবী কন্ঠে ধীর স্বরে চিত্কার করে ডেকে উঠলো , 'খোকা ও খোকা আমার জন্য কিছু আনিসনি ? একটা সাদা শাড়ি ? গতবছরও আনলিনা .. সাজ্জাদ থরথর করে কেঁপে উঠলো ! এই কন্ঠ সে চেনে ! জন্ম থেকে শুনে এসেছে ! এ তার মায়ের কন্ঠ ! রিকশা প্যাডেলের ক্যাঁচকোঁচ শব্দ হচ্ছে অবিরাম ! "ও ভাই একটু শুনেন কে যেন আসতেছে একটু তাড়াতাড়ি চালান" ,সাজ্জাদ কম্পিত স্বরে রিকশাওয়ালাকে ডাক দেয় । রিকশাওয়ালা পিছন ফেরেনা । রিকশা ঝাঁকুনি খেতে খেতে চলেছে আগের মতই ! একটা নিশাচর পাখি ডানা ঝাপটে উড়ে গেল । বুনো লেবুর গন্ধ ভেসে আসছে । আচমকা পিঠের উপর ঠান্ডা কিছুর স্পর্শ ! সাজ্জাদ শিঁরদাড়া সোজা করে স্থির হয়ে গেল ! কানের কাছ বেয়ে ঘামের ফোটা টপ টপ ঝরতে শুরু করেছে । ভয়ে আতংকে বোধশুদ্ধি লোপ পেয়ে গেল ওর । হিমশীতল স্পর্শটা ওঠানামা করছে ওর পিঠের উপর ,যেন কেউ আদর করে হাত বোলাচ্ছে ওর পিঠে । "ও খোকা মানিক আমার" , ওর মায়ের কাতর কন্ঠটা ফিসফিস করে বলছে , " আয় আয় চাঁদ মামা টিপ দিয়ে যা ,আমার জাদুর কপালে টিপ দিয়ে যা !খোকা আমার ,লক্ষী আমার , বাছা আমার এখনো খাসনি ? আমার সাথে চল মাছের মুড়ো রেঁধে খাওয়াব তোকে । কবরে শিয়াল বাসা বেঁধেছেরে আমি ঘুমাতে পারিনা বাছা । শাড়ি এনেছিস খোকা ? একটু দেখি ? ও খোকা .. তোর বাবার ও খুব কষ্ট হয় তোকে না দেখে । আয় খোকা একটা চুমু দিই তোর কপালে .. পিছ ফির .. খোকা .. ও খোকা .. আতংকে দিশেহারা সাজ্জাদ শক্ত করে টর্চটা আকড়ে থরথর কাঁপতে থাকে । ফিরবেনা ফিরবেনা করেও পিছ ফেরে ও। যেন কেউ জোর করে ওকে পিছন ফিরালো ! রিকশার হুডের ফাঁকে ঘোমটা ঢাকা একটা মাথা আবছা অন্ধকারে মুখ বাড়িয়ে রেখেছে । জ্ঞানহারাবার প্রাকমুহুর্তে কপালে একটা শীতল ঠোঁটের স্পর্শ টের পেল সাজ্জাদ ! নাকুন্দপাড়ার বাজারে একটা দোকান তখনো আধখোলা ছিল । দোকানি দোকান গুছিয়ে মাত্র ঘুমানোর পায়তারা করছিল । রিকশাওয়ালা করিম বিরক্ত হয়ে অজ্ঞান পেসেঞ্জারটাকে দোকানে নিয়ে এসেছে । সে কানে কম শুনে । পেসেঞ্জারটা খামাখা একটু আগে জোরেসোরে চিক্কুর পেড়ে রিকশা থেকে ফাল মেরে বেহুঁশ হয়ে গেছে । টর্চলাইট ভেঙ্গে হাতে কাঁচের টুকরো গেঁথে রক্তারক্তি কান্ড ! করিম বিরক্ত হয়ে গালি দেয় গোটা দশেক । মহামুসিবত ! - বিকেল চড়ুই

ধ্রুব খুব অবাক হয়ে মোবাইলের দিকে তাকালো। প্রায় এক বছর পর তারার নাম্বার থেকে কল। মোবাইলের স্ক্রীনে খুব সুন্দর করে লেখা- STAR is calling… এক বছর আগে ধ্রুবর সাথে তারার ব্রেক আপ হয়ে যায়। সব ঠিকঠাক, হঠাৎ এক বৃহস্পতি বার রাতে তারা জানালো, “আমি রিলেশনটা কনটিনিউ করতে পারবো না। আমি সিরিয়াস।” ধ্রুব আধো বিশ্বাস আধো

নির্বোধ ভালবাসার গল্প: কয়জনে পারে? -1 (সত্যকাহিনী)

(এই সিরিজের প্রতিটি গল্প সত্যকাহিনী; পাত্রপাত্রী বদলানো হয়েছে, আর সাথে প্রেজেন্টেশানেও একটু রোম্যান্টিক ভাব আনা হয়ে থাকতে পারে) ***************************************************** ছেলেটির নাম দিলাম আজহার, আমরা ডাকব আজু বলে মেয়েটি নবনী, মায়ামায়া চেহারা আর সি্নগ্ধ দৃষ্টি দিয়ে সহজেই যেকারো নজর কাড়ে। এবং খুবই বুদ্ধিমতি। আজু ছিল আমাদের স্কুলের ফার্স্ট বয়। ক্লাস ওয়ান থেকে সিক্স পর্যন্ত। ক্লাসের অন্য

অনেকেই জানেন না যে এক ঘণ্টা টিভি দেখলে আপনার আয়ু কমে যায় ২২ মিনিট!

সোফায় বসে চিপস খাচ্ছেন? দীর্ঘক্ষণ টিভি দেখছেন? সাবধান! ওটা টিভি নয়, ওটা একটি ‘ইডিয়েট বক্স’। এ বক্সে সামনে সময় কাটাচ্ছেন আর নিজেকে আপডেট ভাবছেন? বাস্তবতা হলো ওই বঙ্ আপনাকেই বোকা বানাচ্ছে প্রতিনিয়ত। প্রতি এক ঘণ্টা টিভি দেখায় ২২ মিনিট আয়ু কমে, এমনই সতর্কবাণী উচ্চারণ করেছে নতুন একটি গবেষণা প্রতিবেদন। অস্ট্রেলিয়ার একদল গবেষক দীর্ঘ গবেষণা করে

‘ইউনিপেটু’র প্রতারণা-লগ্নি টাকা পরিশোধে কিডনি বিক্রি করতে চান মৌলভীবাজারের স্বপ্না আচার্য্য’

এম শাহজাহান আহমদ, মৌলভীবাজার : ‘ভাই এখানে রক্ত বেচা যায়নি? আমি রক্ত বেছতাম’। ‘ভাই এখানে কিডনি বেচা যায়নি? আমি কিডনি বেছতাম’। মৌলভীবাজারের রাজনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লে¬ক্সের সহকারী ইন্সপেক্টরের কাছে এভাবেই কথাগুলো বলছিলেন করিমপুর গ্রামের স্বপ্না আচার্য। স্বামীর হাড়ভাঙ্গা শ্রম আর প্রাইভেট পড়িয়ে যে টাকা জমিয়েছিলেন ‘ইউনিপেটু’র কর্মকর্তার লোভনীয় অফারের ফাঁদে পা দিয়ে সব কিছু হারিয়েছেন