BLACK blog এ আপনাকে স্বাগতম! আপনি হতে পারেন BLACK blog পরিবারের নিয়মিত একজন সদস্য। আপনার লেখা প্রকাশ করতে পারেন আমাদের যেকোন বিভাগে। আমাদের বিভাগ সমূহঃ " পৃথিবী আজব ঘটনা, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা, অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা, অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা, গুনিজন কহেন, অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা" যে কোন বিষয় সম্পর্কে। ধন্যবাদ - BLACK iz Limited এর পক্ষ থেকে! অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা, অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা, অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ,  পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা, গুনিজন কহেন, অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা

Category Archives: নবীজির জীবন কাহিনী

ন্যয় প্রতিবাদের কাছে পরাজিত যুগে যুগে শত অবিচার অন্যায়!

১৪ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ভালোবাসা দিবস। মনের গভীরে জমে থাকা ভালোবাসা প্রতিদিন, প্রতি মুহূর্তে নানা কায়দায় প্রকাশ করছে তার প্রিয় মানুষের কাছে। আর তাই বিশ্ব ভালোবাসা দিবসটি সবার মনকে ভালোবাসার রঙে রাঙিয়ে দিতে বছর ঘুরে আসছে ভালোবাসা দিবস প্রিয় মানুষের প্রতি ভালোবাসা প্রকাশের অন্যতম উপায় উপহার। যদিও তিন বছর আগে ছ্যাকা খাওয়ার পর এখন পর্যন্ত আমার আর নতুন কোন ভ্যালেন্টাইন হইনি তাই আমি আজ রাতে এবং কাল দিনে মোটামোটি বেকারই আছি। আর বেকার সময়টা কাজে লাগানো যায় কিভাবে, ভাবতে ভাবতে অবশেষে ভাবলাম কিছু একটা লিখা যাক ভালোবাসা দিবস বা ভ্যালেন্টাইন নিয়ে। যাক মূল আলোচনায় ফিরে আসি, যেহুতু ভালোবাসা প্রকাশের অন্যতম উপায় উপহার তাই হয়ত বা আপনিও চাইবেন আপনার ভ্যালেন্টাইন কে কোন না কোন উপহার দিতে। যাই গিফট দেন না কেন এবারের ভ্যালেন্টাইনে তার সাথে আপনি দিতে পারেন কিছু সুন্দর সুন্দর ছবি ভ্যালেন্টাইন গিফট হিশাবে। আর এই গিফট দেওয়ার জন্য আপনার তেমন সময়ও অপচয় করতে হবে না। শুধু দরকার আপনার ভ্যালেন্টাইনের কিছু ছবি, ব্যাস এবার শুধু নির্দিস্ট স্টেপগুলা ফলো করে বানিয়ে নিন আপনার ভ্যালেন্টাইনের জন্য সুন্দর কিছু গিফট। প্রথম স্টেপঃ প্রথমেই কিছু ছবি যোগার করুন! (শুধু মুখের ছবি হলেই বেশী ভাল হবে।) দ্বিতীয় স্টেপঃ এই লিংকে ক্লিক করুন! / www.en.picjoke.net/tag/For+lovers! তিতিয় স্টেপঃ নির্দিস্ট ডিজাইন সিলেক্ট করে ছবি আপলোড দিন! এবার ক্রেট পিকচার এ ক্লিক করুন! চতুর্থ স্টেপঃ অপেক্ষা করুন আশা করি দেখতে পাচ্ছেন আপনার ভ্যালেন্টাইনের সুন্দর চেহারাটা! এবার ডান ক্লিক করে ইমেজটি সেভ করে নিন। ব্যাস হয়ে গেল। পঞ্চম স্টেপঃ যদি ভাল লেগে থাকে তাহলে এবং এই পক্রিয়া অ্যাপলাই করেন তবে অবশ্যই আপনার ভ্যালেন্টাইন কে আমার পক্ষ থেকে ভালবাসা জানিয়ে দিবেন...:P ধন্যাবাদ আশা করি সবার ভ্যালেন্টাইন দিন ভাল যাবে!

যে পারে চোখ কান বন্দ রাখতে তার মুখ থাকে ভার, তার সামনে চলতে পারে শত অন্যায়ের অভিসার! যার মনে নেই প্রতিবাদী তেজ সে চোখ কান বন্দ রাখে, অন্যায়ের শত পদচারনেও তার কন্ঠ রুদ্ধ থাকে!! অন্যায় যে সহে তার মনে থাকে অন্যায় করার প্রবনতা, অন্যায়ের উদ্দীপনায় বন্দী রাখে তার প্রতিবাদী কথা। মুখ আর মনের সমন্নয়ে যেখানে

ভূত ও ভুতুড়ে রহস্যঃ লাশের অভিনেতা

ভূত ও ভুতুড়ে রহস্যঃ লাশের অভিনেতা

চারদিকে ঘুটঘুটে অন্ধকার- মাঝে মাঝে খানিকটা কৃত্রিম আলোক। ঝিঁঝিঁ পোকার কৃত্রিম ডাক। আর কোন সাড়াশব্দ নেই- এমন একটা পরিবেশে অনেক দূর থেকে শোনা গেল -“লাইট – ক্যামেরা- অ্যাকশন”। আমি যেখানে শুয়ে আছি সেখানে শোয়ানো আছে আমার মত আরো তিনজন অভিনেতা। আমি সহ মোট অভিনেতা চারজন। এই হরর ফিল্মটার শুটিং হচ্ছে এফডিসিতে- চার নম্বর ফ্লোরে। আমি

ভূত ও ভুতুড়ে রহস্যঃ আমার বন্ধু রিয়ান-শেষ পর্ব

ভূত ও ভুতুড়ে রহস্যঃ আমার বন্ধু রিয়ান-শেষ পর্ব

রিয়ান কি তবে অশরীরী কিছু একটা??আর কিছু ভাবতে পারলাম না ঠান্ডার মধ্যে ভয়ে শরীর আরো ঠান্ডা হয়ে যেতে লাগলো। কোন মতে কাপতে কাপতে বাড়িতে ঢুকলাম। অনেকদিন পর বাড়িতে এসেছি;চাচা-ফুপু ও ভাইবোন গুলোর সাথে ঠিকমত কথা বলতে পারলাম না।সারাক্ষণ এক ধরনের অস্বস্তি লেগেই থাকলো।অনেক কষ্টে বাবাকে বুঝিয়ে পরদিন ঢাকার পথে রওনা হলাম। বিকালে ঢাকার বাসায় ঢুকলাম

ভূত ও ভুতুড়ে রহস্যঃ আমার বন্ধু রিয়ান-পর্ব-১

ভূত ও ভুতুড়ে রহস্যঃ আমার বন্ধু রিয়ান-পর্ব-১

রিয়ানকে দুদিন ধরে পাওয়া যাচ্ছে না। আশ্চর্যজনক হলেও সত্য এই প্রথম রিয়ান আমাকে না জানিয়ে কোথায় যে ডুব মেরেছে বুঝতে পারছি না। সেবার বাড়ি থেকে পালিয়ে ও যে বান্দরবান গিয়েছিলো তা একমাত্র আমিই জানতাম।আমাদের ক্লাসমেট শান্তা আর সজীবের রিলেশনের ব্যাপারটা ওদের বাসায় জানিয়ে একটা ঝামেলার সৃষ্টি করেছিলো রিয়ান,সেটাও একমাত্র আমিই জানতাম।আর সেই রিয়ান দুদিন ধরে

ভূত ও ভুতুড়ে রহস্যঃ কিছু ভুতুড়ে জাহাজের পরিচিতি

কিছু ভুতুড়ে জাহাজের পরিচিতি

এলিজা বেটেল ১৮৫২ সালে যুক্তরাষ্ট্রের ইন্ডিয়ানা রাজ্যের মেয়র এবং অন্যান্য সন্মানিত ব্যক্তির বিলাস ভ্রমণের জন্য তৈরি করা হয় এলিজা বেটেল। ১৮৫৮ সালে জাহাজটিতে আগুন লেগে যায়। ১০০ যাত্রীর মধ্যে ২৬ জনই মারা যায় ! সমুদ্রের ২৮ ফুট নিচে ডুবে যায় জাহাজটি। লোকমুখে শোনা যায়, পূর্ণিমার রাতে জাহাজটিকে পানির নিচ থেকে জ্বলন্ত অবস্থায় ভেসে উঠতে দেখা

ভূত ও ভুতুড়ে রহস্যঃ শবসাধকের কাল্ট – শেষ পর্ব

ভূত ও ভুতুড়ে রহস্যঃ শবসাধকের কাল্ট – শেষ পর্ব

রুমে ফিরে দেখি মুখতার বাজার করে ফিরে এসেছে।আজ গরুর গোশত এনেছে দু কেজি । ইশতিয়াক থাকবে ভেবেছিল। আমাদের চা দিয়ে বাজারে গেল মুখতার। ইশতিয়াক চা খেতে খেতেই আদিত্যর ফোন পেল। ওরা আজ রাতে বান্দরবান যাচ্ছে। আদিত্য আরেক ছন্নছাড়া। ওর ফোন পেয়েই ব্যাগ গুছিয়ে নিল ইশতিয়াক । ভাঙতি টাকা ফেরত দিয়ে মুখতার বলল, আপনার বন্ধু স্যারে

ভূত ও ভুতুড়ে রহস্যঃ শবসাধকের কাল্ট – ১ম পর্ব

ভূত ও ভুতুরে গল্পঃ শবসাধকের কাল্ট - ১ম পর্ব

জ্যোস্নার আবছা আলোয় দেখলাম মর্গের দরজা খুলে একটা লোক (নাকি শব?) বেরিয়ে এল। আশ্চর্য! কে লোকটা? এতরাতে কি করছিল মর্গে?এখন প্রায় শেষরাত। জানলার পাশে এসে দাঁড়িয়ে সিগারেট টানছিলাম। অনেক দূরে কুকুর ডাকছিল। হঠাৎ মর্গের দিকে চোখ যেতেই চমকে উঠলাম। ভালো করে লোকটাকে দেখাও গেল না। চোখের পলকে অদৃশ্য হয়ে গেল কলাঝোপের আড়ালে। চোখের ভুল? লাশকাটা

ভালবাসার গল্পঃ আমি চাইনি বলেই কি দাওনি

ভালবাসার গল্প

ঈদ সামনে তাই শপিং মল গুলোতে ভীড় হবে এটাই স্বাভাবিক,কিন্তু তাই বলে এতো ভীড়…!উফফ…!খুবই বিরক্ত হচ্ছে রাশেদ,অনেক চেষ্টা করেও স্বাভাবিক থাকতে পারছেনা,এতো মানুষের ভীড়ের মধ্যে শপিং করতে আসার কি দরকার আছে?ঈদের শপিং না করে কি মানুষ ঈদ উদযাপন করে না?!হুহ…!   মিতু বুঝতে পারছে  রাশেদ একটু না প্রচন্ড  পরিমানে বিরক্ত হচ্ছে,কিন্তু সে তা দেখেও না দেখার ভান করে জিনিস কেনায় মনোযোগ দিচ্ছে।সে কি

ভালবাসার গল্পঃ রাতের সাথে একা

ভালবাসার গল্প

১.   মধ্যরাতের ঝুলবারান্দায় বসে আছে শুভ। শুভকে ছুঁয়ে আছে তার অন্তহীন বিষাদ।   পাশের ফ্ল্যাটবাড়িগুলো সবে ঘুমোতে শুরু করেছে। সেদিকে তাকিয়ে থাকতে থাকতে শুভর মনে পড়ছে বাড়ির কথা। কতদিন সে বাড়ি যায়নি; বাড়ি..একটা চাপা অস্বস্তির মুখে সে বারান্দা ছেড়ে উঠে আসে তার টেবিলে। অন্যমনস্কতায় টেবিল থেকে কলম তুলে নেয়। পরক্ষণে ভেতরের রক্তক্ষরণে তা আবার

ভালবাসার গল্পঃ ভাঙন

ভালবাসার গল্প

সকাল থেকে বৃষ্টি। ঝিরঝির করে কি এক বৃষ্টি পরছে। ঠাশ করে সবগুলো পানি একবারে পরে গেলেই হয় তানা, সারাদিন-রাত ধরে এক যন্ত্রণা। আজ আমার অনেকগুলো কাজ ছিল। একটাও হবেনা। কিচ্ছু ভাল্লাগছেনা।   আব্বু-আম্মুর ডিভোর্স হয়ে গেছে। আম্মু আলাদা থাকে আমার ছোটবোনকে নিয়ে। রান্না করে আব্বু নিজেই। চাকরীটা চলে গেছে নাকি আল্লাহ মালুম। সারাদিনি তো দেখি

ভালবাসার গল্পঃ অন্ধকারের গল্প

ভালবাসার গল্প

পিচ্চি একটা মেয়ে এসে বলে গেল, “আফনেরে মাসি ডাকে”। বিরক্তিতে মনটা ভরে গেল আসমা বেগমের। এই ঘরের মাসিটা এতো খাচ্চর! একশ বার তাকে বলা হয়েছে যে এখন আসমা কোন কাস্টমার নিতে পারবে না তবুও ডাকে। এতো টাকার খাই বুড়িটার!     আসমা বেগম, বয়স একুশ খারাপ পাড়ার বাসিন্দা। ভদ্রলোকরা যাকে বলে পতিতালয়। পতিতালয়- যেখানে পতিতারা

ভালবাসার গল্পঃ অভিমানী এক তারা

ভালবাসার গল্প

১ সারাদিন পর বাসায় এসে কলিং বেল প্রেস করার আগে শুনি বাসার ভেতর থেকে তীব্র চেঁচামেচির শব্দ আসছে। “তুই রাধা, তুই না সখি? কোমর দুলিয়ে হেঁটে দেখা গাধা, তোর লম্বা বেনী থাকবে বুঝিস না কেন? জোরে গান গাইবি, কৃষ্ণের ডান পাশে থাকবি তুই মোটি”। আমি এত সব উদ্ভট কথা শুনে হতচকিত হয়ে কলিং বেল প্রেস

ভালবাসার গল্পঃ চক্র…….

ভালবাসার গল্পও

খোলা জানালা দিয়ে হু হু করে রাতের হাওয়া ঢুকছে।একটু শীত শীত করছে।কিন্তু জানালা বন্ধ করতে ইচ্ছে করছে না।এই হাওয়ার এমনই বৈশিষ্ট্য যে একে ঠিক ঘরের ভেতর ঢুকতে দেওয়া উচিৎ নয়,আবার ভাল লাগার কারনে মুখের উপর কপাট লাগিয়ে দেওয়া ও উচিৎ নয়।বিষয়টি এমন,আসছে আসুক!আমি তো তাকে ডেকে আনি নি!থেমে যাওয়ার প্রয়োজন হলে নিজেই থেমে যাবে।  

ভালবাসার গল্পঃ শেষ স্মৃতি….

ভালবাসার গল্প

-হ্যালো…. -হ্যাঁ বল। -কি বলব? -বাহ্! নিজেই না ফোন দিলে….!!! -হুমমম….!!! -মানে? -কি মানে? কিসের মানে?   “ধুর” বলেই ফোন কেটে দেয় মিথিলা। শাফিনটা যে কি না। অকারণে কাজের সময় জ্বালায়…!!   তিন বছর আগের কথা মনে পড়ে মিথিলার। সেই কলেজে প্রথম দিনেই প্রথম দেখা। শাফিন রিকশা থেকে নেমে দ্রুতপায়ে হেঁটে ক্লাসে যাচ্ছিল। আর মিথিলাও

ভালবাসার গল্পঃ ক্যাপ্টেন বাবাকোয়া

ভালবাসার গল্প

যারা বাবাইকে ব্যক্তিগত ভাবে চেনে, তারা জানে বাবাইয়ের একটা ছদ্মনাম আছে। ক্যাপ্টেন বাবাকোয়া। এই নামের উদ্ভাবক সে নিজেই। এবং তার এই নাম নিয়ে জাহিদ ও নোভেরা বর্তমানে মহা দুশ্চিন্তায় আছে। বাবাইয়ের বয়স পাঁচ বছর এবং সবে মাত্র লিখতে শিখেছে ও। কিন্তু সারা ঘর-বাড়ির যতটুকু হাতের নাগালে পায়- চক আর রঙ পেন্সিল দিয়ে নিজের দেয়া নাম

ভালবাসার গল্পঃ ভয়

ভালবাসার গল্প

আমি চিঠি লিখতাম নীলুকে। নীলুর সাথে প্রথমে পরিচয়; পরে কলম বন্ধুত্ব। আরও পরে ও আমার বান্ধবী হয়ে যায়। ঈদের ছুটিতে ঠাকুরগাঁ যাচ্ছিলাম। বি,আর,টি,সি’র তিন জনের সীটের জানালার পাশেরটায় চোখ আটকে যায়। কিছু কিছু মেয়ে চমৎকার হাসতে পারে জানি। কিন্তু হাসির মধ্যেও যে পরিচ্ছন্নতা থাকে, মেলোডি থাকে তা এই প্রথম নজরে পড়ে।মেয়েটার পাশেই আমার বয়সী একটা

ভালবাসার গল্পঃ দূরের তুমি

ভালবাসার গল্প

বিভা কথন – কাল আমার বিয়ে । আমার কেমন যে লাগছে ! বুঝতে পারছি না । বোঝাটা বোধহয় সম্ভব ও না । শিরশিরে একটা ভয় মেশানো ভাল লাগার অনুভূতি … যদিও বর কিংবা বরের বাড়ি কোনোটাই অচেনা নয় , বরং খুব ভালমতই চেনা । প্রেমের বিয়ে নয় অবশ্য । কেমন যেন ভয় হচ্ছে এইবার ।

ভালবাসার গল্পঃ রাত্রীর সহযাত্রী

ভালবাসার গল্প

রাত এগারটা। সাঁই সাঁই করে ছুটে চলেছে কক্সবাজার থেকে ঢাকাগামী দূরপাল্লার বাসটা।আড়াই ঘন্টা আগে বাসটা কক্সবাজার থেকে ছেড়ে এসেছে। আর কিছুক্ষণের মধ্যেই চট্টগ্রাম শহরে প্রবেশ করবে। গোটা বাসে জনা বিশেক যাত্রী ছড়িয়ে ছিটিয়ে বসে আছে। সপ্তাহের মধ্যখান হওয়ায় এই যাত্রী সংকট। তবে চট্টগ্রাম থেকেও হয়ত কিছু যাত্রী উঠবে। বিশ মিনিট পর বাসটা ঝাকি খেয়ে থেমে

ফেসবুক কে আকর্ষণীয় করতে আরও কিছু সিম্বল…

ASCII আর্টের সাথে হয়তো অনেকেরই পরিচয় আছে। তবে কতটুকু পরিচয় আছে তা সঠিক বলতে পারলাম না। অনেকেই হয়তো টুকিটাকি ASCII আর্ট দেখেছেন। আমি যে ASCII আর্টগুলো দেখেছি তাতে মোটামুটি আমি বিস্মিত হয়েছি এবং আমার ধারণা আপনারাও অনেকেই বিস্মিত হবেন। এই ASCII আর্টকে আমার কাছে একধরনের শিল্পই মনে হয়েছে। সাধারন আর্ট দেখে আমি কখনোই অতটা বিস্মিত