BLACK blog এ আপনাকে স্বাগতম! আপনি হতে পারেন BLACK blog পরিবারের নিয়মিত একজন সদস্য। আপনার লেখা প্রকাশ করতে পারেন আমাদের যেকোন বিভাগে। আমাদের বিভাগ সমূহঃ " পৃথিবী আজব ঘটনা, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা, অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা, অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা, গুনিজন কহেন, অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা" যে কোন বিষয় সম্পর্কে। ধন্যবাদ - BLACK iz Limited এর পক্ষ থেকে! অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা, অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা, অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ,  পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা, গুনিজন কহেন, অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা

Category Archives: মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন

আমি ভাল নই,অতটা খারাপও বলার উপায় নেই।আমার মাঝে মনুষত্ব এবং পশুত্ব দুটোই বিরাজমান।

মন ভাল করে দেবার মত একটা ছবি। কি ভাবছেন, ওরা দুজনে কি দেখছে?

আমি ভাল নই,অতটা খারাপও বলার উপায় নেই।আমার মাঝে মনুষত্ব এবং পশুত্ব দুটোই বিরাজমান। এরা প্রতিনিয়ত যুদ্ধে লিপ্ত হচ্ছে।আজ অবধি মনুষত্বই বিজয় লাভ করেছে। কিন্তু ,অদূর ভবিষ্যতেও যে মনুষত্ব তার জয়ের ধারাবাহিকতা বজায় রাখবে,তার নিশ্চয়তা নেই।সুতরাং, সাবধান! ——– ——– ——– ——– সংগ্রহ করেছেনঃ মোহাম্মাদ মেহেদি মেনাফা

-মাস ব্যাপী মাত্র ১,০০০ টাকার মাধ্যমে SEO এবং ফ্রিল্যান্সিং এর উপর কোর্স

মাথায় ফিমারের গুতা খেয়ে ঠায় বসে আছি । আমার বেস্ট ফ্রেন্ড,আমার জানের দোস্ত চারজন রাকিব,শুভ,ইমরান,আর আশিক দাত কেলিয়ে হাসছে। আমার মনে হচ্ছে এমন দোস্ত যেন হিটলারের ও না থাকে।

BLACK iz IT Intitute এর দু-মাস ব্যাপী মাত্র ১,০০০ টাকার মাধ্যমে SEO এবং ফ্রিল্যান্সিং এর উপর কোর্সের আয়োজন করেছে (লিংক-এ ক্লিক করে রেজিস্ট্রেসন করুনঃ www.black-iz.com/institute/registrationfreebd.html ) । – কোর্সটিতে যা যা থাকছে (সংক্ষিপ্ত) – • এসইও কি, এসইও কতপ্রকার? • কী ওয়ার্ড রিসার্চ কি, কিভাবে বের করবেন ফোকাস কী-ওয়ার্ড। • অন পেজ অপটিমাইজেশন এর সকল

SEO কি, কেন শিখবেন এবং বাংলাদেশে এর ভবিষ্যৎ! (+ফ্রী কিছু ই-বুক)

কম্পিউটার ভাইরাস বিস্তারিত ইতিহাস এবং এর থেকে সুরক্ষা থাকার কৌশল

• SEO কিঃ সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন বা এসইও হচ্ছে ধারাবাহিক পরিবর্তনের মধ্যমে একটি ওয়েবসাইটের উন্নতি সাধন করা। এই পরিবর্তনগুলো হয়তো আলাদা ভাবে চোখে পড়বে না কিন্তু সামগ্রিকভাবে এর মাধ্যমে একটি সাইটের ব্রাউজিং এর স্বাচ্ছন্দবোধ অনেকাংশে বেড়ে যায় এবং অর্গানিক বা স্বাভাবিক সার্চ রেজাল্টে সাইটকে শীর্ষ অবস্থানের দিকে নিয়ে যায়। সাবাই চায় তার ব্লগ বা ওয়েব

SEO কি, কেন শিখবেন এবং বাংলাদেশে এর ভবিষ্যৎ! (+ফ্রী কিছু ই-বুক)

মাত্র ১০০০ টাকা

• SEO কিঃ সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন বা এসইও হচ্ছে ধারাবাহিক পরিবর্তনের মধ্যমে একটি ওয়েবসাইটের উন্নতি সাধন করা। এই পরিবর্তনগুলো হয়তো আলাদা ভাবে চোখে পড়বে না কিন্তু সামগ্রিকভাবে এর মাধ্যমে একটি সাইটের ব্রাউজিং এর স্বাচ্ছন্দবোধ অনেকাংশে বেড়ে যায় এবং অর্গানিক বা স্বাভাবিক সার্চ রেজাল্টে সাইটকে শীর্ষ অবস্থানের দিকে নিয়ে যায়। সাবাই চায় তার ব্লগ বা ওয়েব

চলুন একটু টাইম পাস করে আসি

আসসালামুয়ালাইকুম । আশা করি সবাই ভালো আছেন। আজকে আমি আপনাদের সাথে বেশি বক বক করবো না শুধু আমাদের এই সাইট এর কিছু ভালো ভালো পোস্ট দেখাবো প্রথমে ফটোশপ এর শর্টকাট তার পরে ফেইসবুক থেকে আয়  আরও জানতে পারেন আন্ড্রয়েড ফোন এর কিছু সিক্রেট কোড  বোরিং লাগছে এই সব দেখে ?? কি করি বলুনতো হ্যাঁ পেয়েছি চলুন কিছু গল্প পড়ি আমার

ফেইসবুক থেকে আয়

আসসালামুয়ালাইকুম । আশা করি সবাই ভালো আছেন। আজকে আমি আপনাদের পরিচয় করিয়ে দিবো এমন একটি সাইট এর সাথে যেখান থেকে আপনি চাইলে আপনার ফেইসবুক এর ফ্যান পেইজ এর লাইকার বাড়াতে পারবেন শুধু ফেইসবুক নয় আরো অন্নান্য যে সকল সোশ্যাল সাইট  আছে সবগুলোতেই লাইকার নিতে পারবেন এবং টাকা ও আয় করতে পারেন।আনেকতো বক বক করলাম তো চলুন

আন্ড্রয়েড ফোন এর কিছু সিক্রেট কোড

আমরা অনেকেই আন্ড্রয়েড ফোন ইউস করি ,কিন্তু এর কিছু সিক্রেট কোড জানিনা। তাদের জন্ন্যে আমার এই পোস্ট : ১।(*#06#)-আপনার ime নাম্বার প্রদর্শন করবে। ২।এটা থেকে সাবধান!!!!! সাবধান!!!!(*276 7*3855#)-এতে ফোনের সব ডাটা ডিলেট হয়ে যাবে। ৩।(*#*#4636#*#*)ব্যাটারী সঙ্ক্রান্ত তথ্য। ৪।(*#*#273282*255*663282*#*#*)- সকল মিডিয়া ফাইল ব্যাক আপ করার কোড। ৫।(*#*#197328640#*#*)-সার্ভিস টেস্ট মোড কোড। ৬।(*#*#1111#*#*)-FTA SOFTWARE ভার্সন। ৭।(*#*#232339#*#*)-Wlan টেস্ট কোড।

ফটোশপ এর শর্টকাট

আমরা সবাই কম বেশী ফটোশপ ব্যাবহার করি তাই দ্রুত কাজ করার জন্য কিছু শর্ট-কাট কি নিচে দেওয়া হল : Command Shortcut File New… Ctrl+N Open… Ctrl+O Browse… Shift+Ctrl+O Open As… Alt+Ctrl+O Edit in ImageReady Shift+Ctrl+M Close Ctrl+W Close All Alt+Ctrl+W Save Ctrl+S Save As… Shift+Ctrl+S Alt+Ctrl+S Save a Version… Save for Web… Alt+Shift+Ctrl+S Revert F12

ভূল শুধরে আবার ক্রিকেট অঙ্গনে ফিরে আসবে আশরাফুল।

আশরাফুল টাকার জন্য ম্যাচ ফিক্সিং করেনি । সে নিজের ক্যারিয়ার বাঁচানোর জন্য বাধ্য হয়ে ম্যাচ ফিক্সিং করেছে । আশরাফুল সেদিন ম্যাচ ফিক্সিং না করলে ঢাকা গ্ল্যাডিয়েটর’স এর ম্যানেজার তাকে দল থেকে বাদ দিতো । তখন আশরাফুলের ফর্মওখারাপ ছিলো আর এই সুজুগ টাই নিলো ডিজি টিমের ম্যানেজার । আশরাফুলকে ফিক্সিং করাতে বাধ্য করলো ওরা । কিন্তু

নারীকে পণ্য করে উপস্থাপনে যৌন হয়রানি বাড়ছে

বেইজিং: চীনে বিদ্যালয়ে ছাত্রীদের ওপর যৌন হয়রানির ঘটনা বেড়ে চলায় শিক্ষকদের পেশাদারিত্বের নৈতিকতা নিয়ে চারিদিকে উত্তপ্ত আলোচনা শুরু হয়েছে। চায়না পিপলস ডেইলিতে চীনা সমাজের বিদ্যমান লিঙ্গ বৈষম্যকেই শুধু বিদ্যালয়ে ছাত্রীদের ওপর যৌন হয়রানির ঘটনা বেড়ে চলার জন্য দায়ী করলে চলবে কিনা তা নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়েছে। ওই দৈনিকে প্রকাশিত এক নিবন্ধে বলা হয়, শুধু সমাজের বিদ্যমান পুরুষতান্ত্রিক দৃষ্টিভঙ্গীই নারীর ওপর যৌন হয়রানির প্রধানতম কারণ নয়। বরং নারীকে পণ্য করে বাজারে তোলার যে সংস্কৃতি চালু হয়েছে তাও নারীর ওপর যৌন হয়রানি উস্কে দেয়ার ক্ষেত্রে বড় ভূমিকা রাখছে। এতে বলা হয়, নারীর অধিকার হরণ নারীর ওপর যৌন হয়রানির মূলেই নিহিত। পণ্যের বিজ্ঞাপনে নারীকে ব্যাবহারের প্রভাব, ইন্টারনেট এবং গণমাধ্যমে নারীকে যৌন আবেদনময়ী ভঙ্গিতে উপস্থাপনও নারীদের ওপর বেড়ে চলা যৌন হয়রানির পেছনে দায়ী। http://www.rtnn.net/realtime/records/imagefile/201306/8044_1.jpg চীনা সমাজ এখনো পুরুষতান্ত্রিকই রয়ে গেছে এবং এটাই প্রধানত দেশটির বিদ্যমান লিঙ্গ বৈষম্যের কারণ। চীনে এখনো দম্পতিরা ছেলে শিশুর আশা করে বেশি। সেখানে নারীরা এখনো পুরুষের চেয়ে হীন হিসেবেই গণ্য হয়। তার ওপর আছে আবার জন্মনিয়ন্ত্রণ নীতির খড়গ। এর ফলে বিশ্বের মধ্যে যেসব দেশে নারী-পুরুষের সংখ্যা মারাত্মকভাবে ভারসাম্যহীন হয়ে পড়ছে চীনও তার মধ্যে একটি। এক হিসেবে দেখা গেছে, ২০২০ সালের মধ্যে চীনে ৩ থেকে ৪ কোটি পুরুষ পাত্রীর অভাবে অবিবাহিতই থেকে যাবেন যা দেশটিতে মারাত্মক সামাজিক গোলযোগও সৃষ্টি করতে পারে। চীনে ধনী, রাজনৈতিকভাবে সফল, বিখ্যাত এবং উচ্চ শিক্ষিতরাই বিয়ের বাজারে সবচেয়ে জনপ্রিয়। আর প্রান্তিক পর্যায়ের বিশেষত গ্রামীণ এবং অনুন্নত এলাকার পুরুষরা বিয়ের বাজারে একেবারেই পিছিয়ে। ফলে অসচ্ছল পুরুষদের জন্য একজন জীবন সঙ্গিনী পাওয়াটা খুবই কঠিন হয়ে পড়ছে যা মারাত্মক সামজিক অস্থিরতা সৃষ্টি করছে। আয়-রোজগার, শ্রমের বিভাজন, সম্পদের বন্টন এবং রাজনীতিতে অংশগ্রহণের দিক থেকে চীনা সমাজের নারী ও পুরুষের মধ্যে এখনো ব্যাপক বৈষম্য রয়ে গেছে। বাণিজ্যিকীকরণ এবং বিজ্ঞাপন ও ইভেন্টে নারীকে ক্রমাগত একটি ভোগ্য পণ্য হিসেবে উপস্থাপনের ফলে পুরুষরা নারীকে তাদের লালসা মেটানোর সবচেয়ে নমনীয় শিকার হিসেবে ভাবছে। লিঙ্গ বৈষম্য দূর করতে এবং সমাজে নারীদেরকে তাদের নায্য মর্যাদায় প্রতিষ্ঠিত করতে মানুষকে এখনো অনেক লম্বা পথই পাড়ি দিতে হবে।

বেইজিং: চীনে বিদ্যালয়ে ছাত্রীদের ওপর যৌন হয়রানির ঘটনা বেড়ে চলায় শিক্ষকদের পেশাদারিত্বের নৈতিকতা নিয়ে চারিদিকে উত্তপ্ত আলোচনা শুরু হয়েছে। চায়না পিপলস ডেইলিতে চীনা সমাজের বিদ্যমান লিঙ্গ বৈষম্যকেই শুধু বিদ্যালয়ে ছাত্রীদের ওপর যৌন হয়রানির ঘটনা বেড়ে চলার জন্য দায়ী করলে চলবে কিনা তা নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়েছে। ওই দৈনিকে প্রকাশিত এক নিবন্ধে বলা হয়, শুধু সমাজের

আত্মহত্যায় ব্যর্থ জ্যাকসনকন্যা হাসপাতালে

শুধু বিধাতার সৃষ্টি নহ তুমি নারী ! পুরুষ গড়েছে তোমারে সৌন্দর্য সঞ্চারি আপন অন্তর হতে । বসি কবিগণ সোনার উপমাসূত্রে বুনিছে বসন । সঁপিয়া তোমার 'পরে নূতন মহিমা অমর করেছে শিল্পী তোমার প্রতিমা । কত বর্ণ, কত গন্ধ, ভূষণ কত-না -- সিন্ধু হতে মুক্তা আসে, খনি হতে সোনা, বসন্তের বন হতে আসে পুষ্পভার, চরণ রাঙাতে কীট দেয় প্রাণ তার । লজ্জা দিয়ে, সজ্জা দিয়ে, দিয়ে আবরণ, তোমারে দুর্লভ করি করেছে গোপন । পড়েছে তোমার 'পরে প্রদীপ্ত বাসনা -- অর্ধেক মানবী তুমি, অর্ধেক কল্পনা ।

ওয়াশিংটন: প্রয়াত পপকিংবদন্তি মাইকেল জ্যাকসনের ১৫ বছর বয়সী মেয়ে প্যারিস জ্যাকসন আত্মহত্যার চেষ্টা করার পর তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। প্যারিস মাইকেল জ্যাকসনের একমাত্র কন্যা। তিনি তার স্কুলের একজন চিয়ার লিডার। তার দাদা এনজেল হাওয়ানস্কির গণসংযোগ কর্মকর্তা এ খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানিয়েছেন, প্যারিসের অবস্থার উন্নতি হচ্ছে এবং তিনি এখন সুস্থ হয়ে উঠছেন। নিরাপত্তা

এ ড্রাগ এডিক্ট’স জার্নি টু নিউ লাইফ

বেইজিং: ২৯ বছর বয়সী ওয়াং কিং (ছদ্মনাম) স্ত্রী-সন্তান এবং বাড়ি-গাড়ি নিয়ে একটি সুন্দর জীবনই যাপন করতে পারতেন। কিন্তু কয়েক বছর আগে কেটামিন নামক এক কেমিকেল ড্রাগ নেয়া শুরু করার পর থেকে সে সবই হারায়। আমরা যেদিন তার সাথে সাক্ষাৎ করি ততদিনে তিনি চুংকিং পুনর্বাসন কেন্দ্রে এক বছর পার করে দিয়েছে। তিনি লোককে নেশা থেকে দূরে

মহাবিশ্ব ও কক্ষপথ নিয়ে পবিত্র কোরআনের ব্যাখ্যা ।।

কিছু ভুতুড়ে জাহাজের পরিচিতি

আজ হঠাত মহাবিশ্ব নিয়ে লিখতে ইচ্ছে হচ্ছে, কারন টা হচ্ছে মসজিদে হুজুরের ওয়াজ শুনেছিলাম এ প্রসঙ্গে। এসে নেটে সার্চ করতে থাকলাম পড়লাম এর এখন আপনাদের শেয়ার করছি। আসলে এক্ষেত্রে ধর্মের ভেদাভেদ ভুলে আসুন সবাই একটূ জানি। যে যেমনি করিনা কেন আমরা সবাই কিন্তু আল্টিমেটলি বিধাতায় বিশ্বাস করি।। সুতরাং তার এই রহস্যময় মহাবিশ্ব নিয়ে পবিত্র কোরআন

সাভার ট্রাজেডিঃ বানী চিরন্তনী !!

শুরুটা একটা প্রশ্ন দিয়ে করিঃ একদল পন্ডিত রানা খুলনায় আছে এটা ফ্যাসবুকে শেয়ার হওয়ার সাথে সাথে তথ্যটি ভুল, তথ্যটি শাগুদের চাল, যারা তথ্যটি শেয়ার করছে তারা নির্বোধ ইত্যাদি ইত্যাদি বলে প্রতিবাদ করে গলা ফাটিয়ে ফেলেছিল। যেই তথ্যের ভিত্তিতে এক ঘন্টার মাথায় খুলনায় র‍্যাব-পুলিশ অভিজান চালাল এবং শেষমেস যশোরের বেনাপোল থেকেই গ্রেপ্তার করা হল রানাকে। তবে কেন বা কি কারনে এই তথ্য শেয়ার করাতে একদলের এত কস্ট হচ্ছিল "রানাকে বাঁচাতে নাকি পণ্ডিত সাঁজতে? " ঘটনার শুরু আজ সকাল ১১টা নাগাদ আমার এক ফ্যাসবুক ফ্রেন্ড একটা পোস্ট শেয়ার করে তাতে দেখতে পাই রানা খুলনা , সোনাডাঙ্গায় রয়েছে। পরে একটু খেয়াল করে দেখলাম মুল লিখাটি আমার উক্ত ফ্রেন্ড "বাঁশেরকেল্লা - Basherkella" নামক পেজ থেকে শেয়ার করেছে। আমাদের সকলেরই জানা পেজটি বর্তমানে ফ্যাসবুকে অন্যতম জনপ্রিয় বা এক পক্ষের মতে বিতর্কিত পেজ, এক পক্ষ দাবি করে "বাঁশেরকেল্লা - Basherkella" সবসময় মিথ্যচার করে। "বাঁশেরকেল্লা - Basherkella" মিথ্যাচার করে নাকি তারাই করে আজ তা আরেকবার স্পস্ট হল, ধারাবাহিক ভাবে এই লিখাটা পড়লেই আপনি এর উত্তর খুঁজে পাবেন। বারবারই বলা হচ্ছিল কেও যদি দেখে থাকেন রানাকে যেন ফ্যাসবুকের মাধ্যমে তা প্রচার করে দেওয়া হয়। সেই সুত্রেই হয়ত কেও উক্ত তথ্যটি "বাঁশেরকেল্লা - Basherkella" এর ফ্যানপেজের অ্যাডমিন কে বা অন্নান্য অ্যাডমিন কে ম্যাসেজ দিয়ে জানিয়েছেন। যে বা যারা জানিয়েছিল তাদের নাম এখনও জানা যায়নি। কিন্তু তার ঠিক ২.০০ থেকে ২.৩০ মিনিটের দিকে খুলনা , সোনাডাঙ্গায় রয়েছেন রানা ঐ তথ্যের বিরুধিতা বা ঐ তথ্যটি অপপ্রচার বলে আরেকটি পক্ষ গলা ফাটাতে শুরু করে। "শাহবাগে সাইবার যুদ্ধ" নামক পেজটিতে তখন যা লিখা হইয়েছিল তা নিম্নরূপঃ "প্রচণ্ড রকমের হতাশ ও হতবাক হই ফেসবুকে নির্বোধের সংখ্যা দেখে। খুলনার কোনো একটা বাড়িতে সোহেল রানার দেখা পাওয়া গেছে -- বাড়ির ঠিকানা দিয়ে এই মর্মে একটা স্ট্যাটাস এসেছে একটা ফেইক আইডি থেকে। অমনি স্ট্যাটাসটা ছড়িয়ে পড়ছে চারিদিকে, আমার হোমপেজে স্ট্যাটাসটা বারবার আসছে shared হয়ে। শেয়ারকারীরা জানলই না, যে আইডিটা ('দাসত্ব শেকল') থেকে স্ট্যাটাসটা ছড়ানো হয়েছে, সে আইডিটা শিবিরচালিত একটা ফেইক আইডি। নির্বোধের দল কিছু না বুঝেশুনেই স্ট্যাটাসটা শেয়ার করা শুরু করল! রানা অত্যন্ত ধূর্ত ও প্রতাপশালী। এই খুনিটা এত বোকা না যে, তার পালাবার জায়গাটা এভাবে ফাঁস হয়ে যাবে। খুলনার যে বাড়িটার ঠিকানা ছাগুরা ছড়াচ্ছে, সেখানে নিশ্চয়ই এখন কিছু লোক জমে যাবে এবং সেখানে একটা দাঙ্গা-ফ্যাসাদ ঘটবে। আর সেই দাঙ্গা দেখে আনন্দে বগল বাজাবে ছাগুর পাল। খোঁজ নিলে দেখা যাবে স্ট্যাটাসে বর্ণিত ঐ বাড়িটি হয়তো কোনো মুক্তিযোদ্ধার বা মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের কোনো অনলাইন অ্যাকটিভিস্টের, তাকে হয়তো সেরেফ হয়রানিতে ফেলতেই তার বাড়ির ঠিকানা ছাগুরা ফেসবুকে ছড়াচ্ছে। এই সহজ হিশাবটা কেন বুঝি না আমরা? কেন এতটুকু কমন সেন্স না খাটিয়েই যা দেখি তাই শেয়ার করে বসি? সাইদিকে চাঁদে দেখা যাওয়ার কিংবা এনাম মেডিকেলে একশো লাশ লুকোবার গুজব যারা ছড়িয়েছে, খুলনায় রানাকে পাওয়ার গুজব ওরাই ছড়াচ্ছে। গুজব আর ফটোশপ ছাড়া ওদের কোনো অবলম্বন নেই। ওমুক ছবি শেয়ার দিলে ওমুক অসুস্থ ব্যক্তিকে ফেসবুক ১ডলার দেবে, ওমুক ছবিতে লাইক দিলে বা শেয়ার করলে নেকি পাওয়া যাবে -- এইজাতীয় বিভ্রান্তির ফাঁদে পা দেবেন না প্লিজ। ছাগু আইডিগুলো নিজ দায়িত্বে চিনে রাখুন। ছাগুদের দেয়া তথ্য বিশ্বাস করার আগে বা ছড়াবার আগে দয়া করে তা যাচাই করে নিন।" উক্ত লিখাটা পরে অবাক হয়েছিলাম কারন যেই ব্যাক্তি তথ্যটা দিয়েছে তাকে ধন্যবাদ না দিয়ে বরং বাজে বোকা হল অথচ ঠিক তার এক ঘন্টার মাথায় খুলনায় র‍্যাব-পুলিশ অভিজান চালাল এবং শেষমেস খুলনার বেনাপোল থেকেই গ্রেপ্তার করা হল। তখন আরও হতাশ ও হতবাক হলাম এরা কি রানাকে বাঁচাতে চেয়েছিল নাকি পণ্ডিত সাঁজতে (খুলনা, সোনাডাঙ্গায় রানা উক্ত) তথ্যটি ভুল প্রমানে উঠে পরে লেগেছিল? যদি বাঁচাতে হয় তাহলে কিছুই বলার নেই শুধুই আরও হতাশ হব আর যদি হয় পণ্ডিত সাঁজতে তাহলে বলব গন্ড মুর্খ-এর দল তোমরা এখন থেমে যাও, যুক্তিহীন কথার বর্তমানে আর কোন মুল্য নেই। আরও কিছু বলাতে ইচ্ছে করছে তাদের তারা বলে ফেসবুকে নির্বোধের সংখ্যা দেখে তারা হতাশ ও হতবাক হচ্ছে, অথচ তাদের মত আহম্মক আর গন্ড মুর্খ দেখে আমরা শুধু হতাশ ও হতবাক নই রীতি মত তাদের আমরা আবাল মনে করি। তাদের চামচাগুলকে মনে হয় ছাগলের তিন নম্বর বাচ্চা, কিছু না বুজেই নাচে। তারা মনে করে তারা যা বলবে তাই সত্য। এবার সেই ছাগলের তিন নম্বর বাচ্চাগুলিকে কিছু বলব এত বিশ্বাস করিস যাদের, তোদের সেই পণ্ডিত-রাই বলল/বলেছিল "...যে আইডিটা ('দাসত্ব শেকল') থেকে স্ট্যাটাসটা ছড়ানো হয়েছে, সে আইডিটা শিবিরচালিত একটা ফেইক আইডি। নির্বোধের দল কিছু না বুঝেশুনেই স্ট্যাটাসটা শেয়ার করা শুরু করল!..." দাসত্ব শেকল কি এই তথ্য ফ্যাসবুকে শেয়ার দিয়েছে কিনা জানি না তবে দিয়ে থাকলেতো হলই আর যদি না দিয়ে থাকে তবে রানা গ্রেপ্তারের তথ্য প্রকাশের সাহসিকতার পুরষ্কার জোড় করেই শিবিরকে দিয়ে দেওয়া দিল? আরও একটা কথা আমাকে খুব অবাক করছে, তারা লিখেছে "খোঁজ নিলে দেখা যাবে স্ট্যাটাসে বর্ণিত ঐ বাড়িটি হয়তো কোনো মুক্তিযোদ্ধার বা মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের কোনো অনলাইন অ্যাকটিভিস্টের, তাকে হয়তো সেরেফ হয়রানিতে ফেলতেই তার বাড়ির ঠিকানা ছাগুরা ফেসবুকে ছড়াচ্ছে। এই সহজ হিশাবটা কেন বুঝি না আমরা? কেন এতটুকু কমন সেন্স না খাটিয়েই যা দেখি তাই শেয়ার করে বসি?" এখন আমার আফছুছ একটা জিনিষের প্রতিবাদ করতে কি বিন্দু পরিমান সত্য কিংবা তথ্য আপানারা জেনে নিতে পারেন না? আমার প্রশ্ন আপনাদের কি কমন সেন্স বলতে কিছু আছে? নাকি রানাকে বাঁচাতেই এই ব্যার্থ চেস্টা চালালেন? নাকি ছাগলের তিন নম্বার বাচ্চাদের সামনে পণ্ডিত সাঁজতে চেয়েছিলেন? সব শেষে তাদের উদ্দেশ্য বলব শুধু একটা পক্ষ এখনও আঁকড়ে ধরে বসে না থেকে সত্যকে মেনে নিন এবং অযথাই যুক্তিহীন তর্ক কোন লাভ নেই। যুক্তিহীন তর্ক, মিথ্যা তথ্য আর মনগড়া কথা শুধুই বিভেদ বাড়াবে কমাবে না। তাই সকলেরই বুদ্ধি বা কমন সেন্স এর উদয় হবে এই আশা করে আজকের মত এটুকুই।

বানীঃ ১ সামান্য একটু প্লাস্টার খুলে পড়েছে। এটা তেমন কিছু নয়। – মো. সোহেল রানা,পৌর যুবলীগের সিনিয়র যুগ্ম আহ্ববায়ক, (রানা প্লাজার মালিক) গতকাল ফাটল দেখা দেবার পরে রানা প্লাজার মালিক পৌর যুবলীগের সিনিয়র যুগ্ম আহ্ববায়ক মো. সোহেল রানা  মঙ্গলবার সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন এই কথা। বানীঃ২  আমরা আগে থেকেই সচেতন ছিলাম। আমরা জানতাম বলে সব লোক সরিয়ে ফেলা হয়েছিল। কিন্তু

apologizing :|

  apologizing, does not always mean, YOU’RE WRONG, It just means that you value your, RELATIONSHIP, More than your EGO…!! Apachee