BLACK blog এ আপনাকে স্বাগতম! আপনি হতে পারেন BLACK blog পরিবারের নিয়মিত একজন সদস্য। আপনার লেখা প্রকাশ করতে পারেন আমাদের যেকোন বিভাগে। আমাদের বিভাগ সমূহঃ " পৃথিবী আজব ঘটনা, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা, অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা, অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা, গুনিজন কহেন, অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা" যে কোন বিষয় সম্পর্কে। ধন্যবাদ - BLACK iz Limited এর পক্ষ থেকে! অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা, অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা, অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ,  পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা, গুনিজন কহেন, অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা

এইযে মেয়ে তোমাকেই বলছি !

এইযে মেয়ে তোমাকেই বলছি

লিখেছেনঃ রাকিবুল ইসলাম অপূর্ব

আজকাল কিছু ছেলে একটা মেয়ে এর সাথে রিলেশনে যাওয়ার কিছুদিনের মাঝেই তার প্রেমিকার কাছে ছবি চায়। সাধারণ ছবি না, বিশেষ ছবি, পার্সোনাল ছবি। কিছু মেয়ে আবার তার ভালোবাসার মানুষটাকে খুশি (!) করতে নিজেই নিজের ছবি তুলে ইনবক্সে পাঠায়। কত বিশ্বাস তাদের মধ্যে! কত্ত ভালোবাসো! এরকম বিশ্বাস-ভালোবাসা সারাজীবন থাকলে তো সমস্যা ছিলো না। সমস্যাটা হয় যখন হঠাৎ ব্রেকআপ হয়, আর সেই ছবি গুলাও কিভাবে কিভাবে যেন আর ইনবক্সে থাকেনা, সেই গুলো ছড়িয়ে যায়। এদিকে যখন মেয়েটা নতুন কাউকে নিয়ে নতুন ভাবে জীবন সাজাচ্ছে, ঠিক তখন ছেলেটা আক্রোশবশত মেয়েটাকে ব্ল্যাকমেইল করার হাতিয়ার পেয়ে যায়!

মেয়ে, আমরা এমন একটা সমাজে বাস করি যেখানে পুরুষের সতিত্ব বলে কিছু নাই, হাজার টা মেয়ের সাথে লুতুপুতু করলেও সে মহান! আর তোমার শরীরে একটা দাগ পড়লেই তুমি নষ্টা, তুমি বেশ্যা! তোমার শরীর হলো বিজ্ঞাপনের ভোগ্যপন্য- খেয়াল করে দেখো, তোমার ছবিই কিন্তু চায়, তুমি কিন্তু ছেলেটিকে খালি গায়ে কিছু ছবি পাঠাতে বলনা… আর সবচেয়ে খারাপ ছেলেটাও নিজের প্রেমিকা কিংবা বউকে চায় একদম ফ্রেশ! এখন তুমি যতই ভালোবাসো না কেন আর যতই মাফ চেয়ে ভালো হয়ে যাবার প্রতিজ্ঞা করো না কেন, তোমার অতীত থেকে যখন একটা ভয়ানক কিছু তোমার বর্তমানের হাতে চলে আসবে, সে আর কিছুতেই তোমাকে আগের মত ভাবতে পারবে না, কিছুতেই না!

মেয়ে, রাতারাতি সমাজ বদলে ফেলতে পারবে না যখন, তখন নিজেই সাবধান হয়ে যাও না! যেই প্রেমিক তোমার মনের খোঁজ না নিয়ে তোমার বাইরের ছবি টুকুর জন্য চাপাচাপি করে তার স্বভাব কি তুমি বুঝ না? ভালোবাসা এতই অন্ধ যে ভালো-মন্দ প্রার্থক্য ঘুচিয়ে দেয়? যেই ছেলেরা এসব করছে তাদের আগলে না রেখে বরং মুখোশ খুলে দিতে পারো না? সে হয়তো আরো চারটা চ্যাটবক্সে একই কথা বলছে আরো চারটা মেয়েকে! আর যদি নিজ ইচ্ছাতেই দাও, তাহলে পরবর্তীতে যে কনসিকুয়েন্স আসবে,সেটা চুপচাপ হজম করো আর নইলে অপমান লজ্জা সহ্য না করতে পারলে একা একাই থাকো। আমি কোন সাধু সন্ত না, জীবনে যত অন্যায় করেছি তার ততটুকুই আমাকেও ফিরিয়ে দেয়া হবে। তাই কোন কিছু করার আগে দুই বার ভেবে নিও, কারণ পাপ তার বাপকেও ছাড়ে না- এটাই জীবনের কঠিনতম সত্য।



সর্বশেষ ১২টি:

.