BLACK blog এ আপনাকে স্বাগতম! আপনি হতে পারেন BLACK blog পরিবারের নিয়মিত একজন সদস্য। আপনার লেখা প্রকাশ করতে পারেন আমাদের যেকোন বিভাগে। আমাদের বিভাগ সমূহঃ " পৃথিবী আজব ঘটনা, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা, অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা, অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা, গুনিজন কহেন, অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা" যে কোন বিষয় সম্পর্কে। ধন্যবাদ - BLACK iz Limited এর পক্ষ থেকে! অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা, অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা, অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ,  পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা, গুনিজন কহেন, অন্যান্য এবং আরও কিছু, পৃথিবী আজব ঘটনা, ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৫, গুনিজন কহেন , জন্মদিনের উইস করার এসএমএস, সমস্যা পরামর্শ সমাধান , মেয়েদের মেহেদি ডিজাইন, বাচ্চাদের নাম , পৃথিবীর ঐতিহাসিক প্রবাদ, পর্দার পেছনের ঘটনা, যত অদ্ভুত আবিস্কার , কাল্পনিক কল্পনা

আজ মেনেই নিতে হচ্ছে যে অনলাইন বিশ্বে একটা পক্ষ হেরে গিয়েছে। (কিছু প্রস্ন)

কিছু প্রস্ন প্রায় মনে জাগে কিন্তু উত্তর খুজে পাইনা। প্রস্নগুলা লিখার আগে কিছু কথা বলেনি জানি, এই লিখাটা পড়ে অনেকেই আমাকে বলবেন আমি শাগু কিংবা ভারতের দালালি করছি বলে মন্তব্য করবেন। কিন্তু এই লিখাটা তে আমি কারও পক্ষেই লিখব না বরং কিছু জরিপ এর ফল এখানে দিব। বাংলাদেশে প্রতিটি মানুষই কম বেশি যুদ্ধাপরাধির বা রাজাকারের বিচার চায় আবার এই কথাটাও সত্য বেশির ভাগ মানুষই সকল যুদ্ধাপরাধি এবং সত্যিকার যুদ্ধাপরাধিদের বিচার চায়। এই  যুদ্ধাপরাধি নিয়ে অনেক তর্ক-বিতর্ক হয়েগেছে। এনিয়ে আর কোন কথাও নয়, মুল বিষয়ে চলে আশা যাক। মুল বিষয় হচ্ছে এই দুই পক্ষেরই দাবী তাদের পক্ষে দেশের সব মানুশ বা বেশির ভাগই তাদের পক্ষে। তাই আমি জর গলায় আর বলব না কার বা কাদের দলে বেশি মানুষ তার চেয়ে বরং অনলাইনের ভিবিন্ন এক্টিভিটিসের তুলনা করে দেখে নেওয়া যাক কার বা কাদের পক্ষে বেশি মানুষ।

 

প্রথমেই আশি এই দুই মেরুর দুই পক্ষের দুটি ফেসবুক ফ্যনপেজ এর  তুলনা করি। প্রথম পক্ষ এদের প্রজন্ম চত্বর  এদের অফিশিয়াল ফ্যনপেজ “।। প্রজম্ম চত্বর – শাহবাগ ।।” ( http://www.facebook.com/www.projonmochottorsahbagjr ), এই পেজটি প্রায় ২মাস যাবৎ চলছে এবং দেশের প্রায় হাতেগোণা ৮০%-৮৯% মেডিয়া উনাদের পেজটির পরিচয় সাধারনের কাছে  তুলে ধরেছে। শুরুতে এর 200,000+ লাইকার  এবং 200,000+ অ্যাক্টিভ মেম্বার ছিল কিন্তু বর্তমানে পেজটির লাইক কমে 131,314 আছে এবং  121,775 অ্যাক্টিভ মেম্বার রয়েছে(131,314 likes · 121,775 talking about this)। অর্থাৎ খুব দ্রুত অ্যাক্টিভ মেম্বার এবং  লাইকার হ্রাস পাচ্ছে।

 jjj

কিন্তু অপরদিকে “বাঁশেরকেল্লা – Basherkella” ( http://www.facebook.com/newbasherkella ) দ্বিতীয় পক্ষের ফ্যানপেজ পর পর ৩-৪ বার বন্ধ হবার পরও এদের বর্তমান লাইকার ৯২,০০০+ এবং ২০৫,৫৫৪ অ্যাক্টিভ মেম্বার (92,083 likes · 205,554 talking about this)। “বাঁশেরকেল্লা – Basherkella” ফ্যানপেজটি পর পর চার বার বন্ধ হয়ে শেষ বার চালু হয়েছে ২০ দিনের কম হবে তারপরও শূন্য থেকে ৯২,০০০+ লাইকার এবং ২০৫,৫৫৪ অ্যাক্টিভ মেম্বার  পাওয়া চারটি খানি কথা নয়। যেখানে আমাদের দেশের অন্যতম বড় বড় মেডিয়া যারা ৫-৬ বছর যাবৎ তাদের ফেসবুক ফ্যানপেজ গুলার রেগুলার অ্যাড দিয়ে হাতে পায়ে ধরেও এখন পর্যন্ত কেউ ৫০,০০০+ অ্যাক্টিভ মেম্বার  পায়না সেখানে মাত্র বিশ দিনে ২০৫,৫৫৪ অ্যাক্টিভ মেম্বার এক কথায় অবিশ্বাস্য এবং চাঞ্চল্যকর ব্যপার।  “।। প্রজম্ম চত্বর – শাহবাগ ।।” ফ্যানপেজটির দিগুন অ্যাক্টিভ মেম্বার!

 

কিছু প্রস্ন প্রায় মনে জাগে কিন্তু উত্তর খুজে পাইনা। প্রস্নগুলা লিখার আগে কিছু কথা বলেনি জানি, এই লিখাটা পড়ে অনেকেই আমাকে বলবেন আমি শাগু কিংবা ভারতের দালালি করছি বলে মন্তব্য করবেন। কিন্তু এই লিখাটা তে আমি কারও পক্ষেই লিখব না বরং কিছু জরিপ এর ফল এখানে দিব। বাংলাদেশে প্রতিটি মানুষই কম বেশি যুদ্ধাপরাধির বা রাজাকারের বিচার চায় আবার এই কথাটাও সত্য বেশির ভাগ মানুষই সকল যুদ্ধাপরাধি এবং সত্যিকার যুদ্ধাপরাধিদের বিচার চায়। এই  যুদ্ধাপরাধি নিয়ে অনেক তর্ক-বিতর্ক হয়েগেছে। এনিয়ে আর কোন কথাও নয়, মুল বিষয়ে চলে আশা যাক। মুল বিষয় হচ্ছে এই দুই পক্ষেরই দাবী তাদের পক্ষে দেশের সব মানুশ বা বেশির ভাগই তাদের পক্ষে। তাই আমি জর গলায় আর বলব না কার বা কাদের দলে বেশি মানুষ তার চেয়ে বরং অনলাইনের ভিবিন্ন এক্টিভিটিসের তুলনা করে দেখে নেওয়া যাক কার বা কাদের পক্ষে বেশি মানুষ।  প্রথমেই আশি এই দুই মেরুর দুই পক্ষের দুটি ফেসবুক ফ্যনপেজ এর  তুলনা করি। প্রথম পক্ষ এদের প্রজন্ম চত্বর  এদের অফিশিয়াল ফ্যনপেজ "।। প্রজম্ম চত্বর - শাহবাগ ।।" ( http://www.facebook.com/www.projonmochottorsahbagjr ), এই পেজটি প্রায় ২মাস যাবৎ চলছে এবং দেশের প্রায় হাতেগোণা ৮০%-৮৯% মেডিয়া উনাদের পেজটির পরিচয় সাধারনের কাছে  তুলে ধরেছে। শুরুতে এর 200,000+ লাইকার  এবং 200,000+ অ্যাক্টিভ মেম্বার ছিল কিন্তু বর্তমানে পেজটির লাইক কমে 131,314 আছে এবং  121,775 অ্যাক্টিভ মেম্বার রয়েছে(131,314 likes · 121,775 talking about this)। অর্থাৎ খুব দ্রুত অ্যাক্টিভ মেম্বার এবং  লাইকার হ্রাস পাচ্ছে।   কিন্তু অপরদিকে "বাঁশেরকেল্লা - Basherkella" ( http://www.facebook.com/newbasherkella ) দ্বিতীয় পক্ষের ফ্যানপেজ পর পর ৩-৪ বার বন্ধ হবার পরও এদের বর্তমান লাইকার ৯২,০০০+ এবং ২০৫,৫৫৪ অ্যাক্টিভ মেম্বার (92,083 likes · 205,554 talking about this)। "বাঁশেরকেল্লা - Basherkella" ফ্যানপেজটি পর পর চার বার বন্ধ হয়ে শেষ বার চালু হয়েছে ২০ দিনের কম হবে তারপরও শূন্য থেকে ৯২,০০০+ লাইকার এবং ২০৫,৫৫৪ অ্যাক্টিভ মেম্বার  পাওয়া চারটি খানি কথা নয়। যেখানে আমাদের দেশের অন্যতম বড় বড় মেডিয়া যারা ৫-৬ বছর যাবৎ তাদের ফেসবুক ফ্যানপেজ গুলার রেগুলার অ্যাড দিয়ে হাতে পায়ে ধরেও এখন পর্যন্ত কেউ ৫০,০০০+ অ্যাক্টিভ মেম্বার  পায়না সেখানে মাত্র বিশ দিনে ২০৫,৫৫৪ অ্যাক্টিভ মেম্বার এক কথায় অবিশ্বাস্য এবং চাঞ্চল্যকর ব্যপার।  "।। প্রজম্ম চত্বর - শাহবাগ ।।" ফ্যানপেজটির দিগুন অ্যাক্টিভ মেম্বার!  (উভয় পক্ষেরই আরও পেজ এর তথ্য এখানে চিত্রের মাধ্যমে তুলে ধরা হল।)  (বাংলাদেশের আলোচিত সব পত্রিকার পেজ এর তথ্য এখানে চিত্রের মাধ্যমে তুলে ধরা হল।)  এবার আশি আমার মুল প্রশ্নে "তাহলে কি দেশের বেশির ভাগ মানুষই শাগু, রাজাকার?" নাকি "নাকি ফেসবুক এর মালিক জুকার্বার্গও রাজাকের দল নিয়ে মিথ্যা ফলাফল দেখাচ্ছে?" এবার আপনি হয়ত বা বলবেন অনালাইনের সাথে বাস্তব জগৎ এর কোন মিল নেই বা বাস্তব জগৎ -এ কোন মুল্য নেই।  তাহলে আরেকটি প্রশ্ন চলে আসে আবার এই তর্ক-বিতর্কের শুরুতেই কিন্তু বলা হয়েছিল এই আন্দলন তরুন অনলাইন বলাগার দের পক্ষ থেকে তার মানে অনলাইনের বেশির ভাগ তরুনের সম্মতিতেই এই আয়োজন, অর্থাৎ যাদের অনলাইনে জনমত সবচেয়ে বেশি এবং অনলাইনে যারা সবচেয়ে শক্তিশালী। "তবে এখন কেন তারা তাদেরই সেই অনলাইন বিশ্বে হেরে যাচ্ছে বার বার?" যদি উত্তর না থাকে তবে আজ মেনেই নিতে হচ্ছে যে অনলাইন বিশ্বে একটা পক্ষ সু-স্পষ্ট ভাবে হেরে গিয়েছে আর যদি উত্তর থাকে তবে আশা করব যুক্তি দিয়ে মতামত দিবেন জোর করে কারও পক্ষে না গিয়ে আমার প্রস্নগুলোর উত্তর দিবেন। আর শুধু শুধু এক পক্ষ হেরে হেরেগেছে বলে যদি আমাকে শাগু, রাজাকার, শিবির কিংবা অন্য কিছু বলেন তাহলে আমি দুঃখিত কারন আমি ফেসবুকের মালিক নই কিংবা জুকার্বার্গের সাথে আমার কোন কালের কোন সম্পর্ক নেই তাই আমিও চাইলেও এই ফলাফল পরিবর্তন করা সম্ভব নয়। লেখাটা পড়ার জন্য ধন্যবাদ।   (আরও কিছু বড় বড় ফ্যাসবুক ফেনপেজ যারা এই তর্কে-বিতর্কে অংশ গ্রহন করছে। )  আর অপনি চাইলে আপনার জানা অন্নান  তর্কে-বিতর্কে অংশ গ্রহন করা  ফ্যাসবুক ফেনপেজ গুলার লিন্ক, নাম এখানে দিতে পারেন পরবর্র্তিতে লিখার সময় কাজে আসবে।

(উভয় পক্ষেরই আরও পেজ এর তথ্য এখানে চিত্রের মাধ্যমে তুলে ধরা হল।)

Untitled

(বাংলাদেশের আলোচিত পত্রিকার পেজ এর তথ্য এখানে চিত্রের মাধ্যমে তুলে ধরা হল।)

এবার আশি আমার মুল প্রশ্নে “তাহলে কি দেশের বেশির ভাগ মানুষই শাগু, রাজাকার?” নাকি “নাকি ফেসবুক এর মালিক জুকার্বার্গও রাজাকের দল নিয়ে মিথ্যা ফলাফল দেখাচ্ছে?” এবার আপনি হয়ত বা বলবেন অনালাইনের সাথে বাস্তব জগৎ এর কোন মিল নেই বা বাস্তব জগৎ -এ কোন মুল্য নেই।  তাহলে আরেকটি প্রশ্ন চলে আসে আবার এই তর্ক-বিতর্কের শুরুতেই কিন্তু বলা হয়েছিল এই আন্দলন তরুন অনলাইন বলাগার দের পক্ষ থেকে তার মানে অনলাইনের বেশির ভাগ তরুনের সম্মতিতেই এই আয়োজন, অর্থাৎ যাদের অনলাইনে জনমত সবচেয়ে বেশি এবং অনলাইনে যারা সবচেয়ে শক্তিশালী।

 

“তবে এখন কেন তারা তাদেরই সেই অনলাইন বিশ্বে হেরে যাচ্ছে বার বার?” যদি উত্তর না থাকে তবে আজ মেনেই নিতে হচ্ছে যে অনলাইন বিশ্বে একটা পক্ষ সু-স্পষ্ট ভাবে হেরে গিয়েছে আর যদি উত্তর থাকে তবে আশা করব যুক্তি দিয়ে মতামত দিবেন জোর করে কারও পক্ষে না গিয়ে আমার প্রস্নগুলোর উত্তর দিবেন। আর শুধু শুধু এক পক্ষ হেরে হেরেগেছে বলে যদি আমাকে শাগু, রাজাকার, শিবির কিংবা অন্য কিছু বলেন তাহলে আমি দুঃখিত কারন আমি ফেসবুকের মালিক নই কিংবা জুকার্বার্গের সাথে আমার কোন কালের কোন সম্পর্ক নেই তাই আমিও চাইলেও এই ফলাফল পরিবর্তন করা সম্ভব নয়। লেখাটা পড়ার জন্য ধন্যবাদ।

(আরও কিছু বড় বড় ফ্যাসবুক ফেনপেজ যারা এই তর্কে-বিতর্কে অংশ গ্রহন করছে। )

আর অপনি চাইলে আপনার জানা অন্নান  তর্কে-বিতর্কে অংশ গ্রহন করা  ফ্যাসবুক ফেনপেজ গুলার লিন্ক, নাম এখানে দিতে পারেন পরবর্র্তিতে লিখার সময় কাজে আসবে।

 



সর্বশেষ ১২টি:

.